ডিজিটাল মিটার আতঙ্কে ভুগছে দামুড়হুদা সদরের গ্রাহক সাধারণ

দামুড়হুদার রঘুনাথপুরে সারাদিন বিদ্যুত না থাকায় ভ্যাপসা গরমে জনদূর্ভোগ চরমে

 

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদার রঘুনাথপুরে গাছের ডাল ছাটার অজুহাতে গতকাল রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত  বিদ্যুত বন্ধ রাখে পল্লী বিদ্যুতের লোকজন। সারাদিন বিদ্যুত না পেয়ে চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়ে গ্রাহক সাধারণ। ভোগান্তির স্বীকার বেশকিছু গ্রাহক সাধারণ মোবাইলফোনে দৈনিক মাথাভাঙ্গার দামুড়হুদা প্রতিনিধির নিকট ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে এ চরম দূর্ভোগের কথা তুলে ধরে বলেন, একদিকে ভাদ্রের এ তালপাকা ভ্যাপসা গরম অন্যদিকে বিদ্যুতের অসহনীয় লোডশেডিং।

তারা আরো জানান, সারাদিন বিদ্যুত না পেয়ে অনেকেই পানির অভাবে গোসল পর্যন্ত করতে পারেনি। তাছাড়া কোনো মাইকিং বা পূর্ব ঘোষণা ছাড়া কীভাবে ডাল ছাটার অজুহাতে সারাদিন বিদ্যুত বন্ধ রাখলো। আমরা এ কোন দেশে বসবাস করি। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন পল্লী বিদ্যুতই বর্তমান সরকারকে ডুবিয়ে দেবে।

এদিকে দামুড়হুদা উপজেলা শহরে বিদ্যুত চুরি ঠেকাতে সম্প্রতি ডিজিটাল মিটার স্থাপনের কাজ শুরু করা হয়েছে। অনেক গ্রাহক সাধারণের অভিযোগ বিদ্যুত না থাকলেও জেনারেটর চলাকালে মিটারে রিডিং উঠছে এবং লাল সিগনার লাইটটিও জলছে। যা গ্রাহকদের মোটা অঙ্কের বাড়তি বিল গুনতে হবে। ফলে ডিজিটাল মিটার আতঙ্কে ভুগছেন গ্রাহক সাধারণ। এ বিষয়ে দামুড়হুদা পল্লী বিদ্যুতের অফিস প্রধান মিনহাজুল ইসলাম বলেন, গাছের ডালপালা ছেটে না দিলে বিদ্যুতায়িত হয়ে জানমালের ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা থাকে। তবে আমরা কাজ শেষ করে দুপুরের পরপরই বিদ্যুত সংযোগ দিয়েছিলাম। কিন্ত আদৌ এলাকায় ওই সময় বিদ্যুত ছিলো না। আর ডিজিটাল মিটার যদি জেনারেটর চলাকালে রিডিং ওঠে তাহলে জেনারেটর লাইন আলাদা করে ফেলতে হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published.