ডজনখানেক মামলার ওয়ারেন্টি আসামি মান্নান গ্রেফতার

 

আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ ও ঘোলদাড়ি ফাঁড়ি পুলিশের সফল অভিযান

আলমডাঙ্গা ব্যুরো/মোমিনপুর প্রতিনিধি: এক ডজনের অধিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি এবং একটি মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি বহু অপকর্মের হোতা আলমডাঙ্গার হোসেনপুর গ্রামের বহুল আলোচিত মান্নানকে অবশেষে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। পুলিশ মান্নানকে গ্রেফতার করায় এলাকার শান্তিপ্রিয় মানুষ পুলিশকে সাধুবাধ জানিয়েছে। তার গ্রেফতারে মানুষের মাঝে নেমে এসেছে স্বস্তি।

পুলিশ ও এলাকাসূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা উপজেলার আইলহাস ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামের মৃত আইনাল হকের বড় ছেলে এক ডজনের অধিক মামলার আসামি এবং একটি মামলার ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি আব্দুল মান্নান ওরফে কুখ্যাত মান্নানকে (৪৫) পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘোলদাড়ি ফাঁড়ি পুলিশের সহযোগিতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সোমবার ভোর ৬টার সময় অভিযান চালিয়ে হোসেনপুর গ্রামের ইয়ারুল মেম্বারের বাড়ির পাশে হানেফের চায়ের দোকানের সামনে থেকে মান্নানকে গ্রেফতার করা হয়। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন গ্রেফতার এড়াতে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে মান্নান পলাতক ছিলো। তিনি জানান, মান্নানের বিরুদ্ধে ঘোলদাড়ি কেরুজ ফার্মের পাহারাদার বুদোকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে জখম, ফার্মের ঘরে আগুন লাগানো, গাছ চুরি, ফার্মের জমি দখল করা মামলাসহ প্রায় ১৪টি মামলা রয়েছে এবং ফার্মের ৪৫ বিঘা বা ১৫ একর জমির রোপণকৃত চারা ভেঙে তছরুপ করায় দ্রুত বিচার আইনে মান্নানের দু বছরের সাজা হয়। কেরুজ ফার্ম ইনচার্জ গোলাম কিবরিয়া জানান, মান্নান ফার্মের গাছ চুরি, জমি দখলের সহযোগিতার জন্য আমাকে প্রস্তাব দিলে আমি নাকচ করে দিলে সে আমাকে কয়েকবার মেরে ফেলার হুমকিও দেয়।

এলাকাবাসী জানায়, ঘোলদাড়ি কেরুজ ফার্মসংলগ্ন হোসেনপুর গ্রামের মান্নান এলাকার মানুষের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে ফার্মের শতাধিক জমি ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে জনগণের মাঝে দিয়ে দেয়। একের পর এক ঘটনা ঘটালেও এলাকার মানুষ তার বিরুদ্ধে টু শব্দ করতে সাহস পেতো না। মান্নান গ্রেফতার হওয়ায় এলাকার সচেতনমহল পুলিশকে সাধুবাদ জানিয়েছে। গ্রেফতারকৃত মান্নানকে গতকালই আলমডাঙ্গা থানায় হস্তান্তর করা হয়। আজ মঙ্গলবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে থানাসূত্রে জানা গেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *