ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে পথচারী রমি নিহত

চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ সড়কের ডিঙ্গেদহ হাইওয়ে ফিলিং স্টেশনের নিকট দুর্ঘটনা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা ডিঙ্গেদহের মানিকদিহিপাড়ার অস্থায়ী বাসিন্দা রমিজ আলী রমি (৩৫) ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ সড়কের ডিঙ্গেদহ হাইওয়ে ফিলিং স্টেশনের নিকট এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রমিজ আলী রমি চুয়াডাঙ্গা বেলগাছি বকচরপাড়ার শুকুর আলীর ছেলে। দিন মজুরের পাশাপাশি তিনি খেঁজুরগাছ কেটে তাড়ি তৈরি করতেন। নিজে খাওয়ার পাশাপাশি বিক্রিও করতেন বলে স্থানীয়রা জানিয়ে বলেছে, গতকাল দুর্ঘটনার সময়ও তিনি তাড়িপান অবস্থায় ছিলেন। ঘাতক ট্রাকটি ডিঙ্গেদহে স্থানীয় জনতার সহযোগিতায় আটক করা হয়েছে। ট্রাকটি ধাক্কা দিয়ে চাকায় পিষ্ট করে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা বেলগাছি বকচরপাড়ার রমি বেশ কিছুদিন ধরে ডিঙ্গেদহ মনিকদিহি হঠাতপাড়ায় তার এক স্ত্রী নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। তার অপর স্ত্রী থাকে বদরগঞ্জে। বাড়ি বেলগাছিতেও মাঝে মাঝে থাকতেন তিনি। গতকাল সন্ধ্যার পর চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ সড়কের হাইওয়ে ফিলিং স্টেশনের নিকট রাস্তা পার হতে গেলে ঝিনাইদহ থেকে ছেড়ে আসা চুয়াডাঙ্গামুখি ট্রাক যশোর-ট-১৫৪৯ ধাক্কা দেয়। চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন রমি। ট্রাকটি দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে নিয়ে চালক ডিঙ্গেদহের একটি স্থানে রেখে চালক ও হেলপার সটকে পড়ে। পরে স্থানীয় জনগণের সহযোগিতায় পুলিশ তা জব্দ করে।

রমির লাশ গতরাতে দীর্ঘ সময় ঘটনাস্থলেই ছিলো। পরে লাশ নিজ গ্রাম বেলগাছিতে নেয়ার প্রক্রিয়া করা হয়। পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মনি বলেছেন, রমির লাশ তার নিজ গ্রাম বেলগাছি কবরস্থানেই দাফনের প্রক্রিয়া করা হচ্ছে। রমির প্রথম স্ত্রীর রয়েছে ২ মেয়ে ও ১ ছেলে। দ্বিতীয় স্ত্রী রয়েছে এক ছেলে। ছেলে মেয়ের সকলেই শিশু।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *