ট্রাকচালক আছড়ে পড়ে লাশ হেলপার আগুনে পুড়ে অঙ্গার

চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়ে ট্রাকচালক ও হেলপার ফিরলো লাশ হয়ে

 

আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি: অবরোধের মধ্যে ট্রাকযোগে ঢাকার পথে রওনা হয়ে লাশ হয়েছে চুয়াডাঙ্গা জীবননগর আন্দুলবাড়িয়ার ট্রাকচালক আনিস ও হেলপার মহিদুল। গত সোমবার রাত ১১টার দিকে ঢাকা-আরিচা সড়কের মানিকগঞ্জের একটি ব্রিজের নিকট নাশকতা এড়াতে ট্রাক থেকে লাফিয়ে পড়ে ট্রাকচালক নিহত হন, আর হেলপার ট্রাকেই পুড়ে অঙ্গার হন। প্রাথমিকভাবে এরকমই তথ্য পাওয়া গেছে।

নিহত ট্রাকচালক আনিসের পরনে জামার পকেটে থাকা চালান কপি থেকে ঠিকানা নিয়ে মানিকগঞ্জ টহল পুলিশের একটি দল নিহতদের নিকটজনদের খবর দেয়।

কার্পাসডাঙ্গা এলাকা থেকে কাঁচামাল নিয়ে ট্রাক চালিয়ে ট্রাকচালক আনিস গত সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন। সাথে ছিলেন হেলপার। ট্রাকে হেলপার ও চালক ছাড়া আর কেউ না থাকার কারণে প্রকৃত ঘটনা অবশ্য নিশ্চিত করে জানা সম্ভব হয়নি।

জানা গেছে. জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের নুরু মণ্ডলের ছেলে পিকআপ ড্রাইভার আনিস উদ্দিন (৩৮) ও অনন্তপুর গ্রামের আব্দুর রহমান লোমানের ছেলে হেলপার মহিদুল ইসলাম (৩৪) গত সোমবার সন্ধ্যায় দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা থেকে কপিভর্তি পিকআপ নিয়ে ঢাকা যাত্রাবাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। পথিমধ্যে রাত সাড়ে ১১টার দিকে মানিকগঞ্জের তরাব্রিজ পার হলে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে দুজনের মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটে। মানিকগঞ্জ থানা পুলিশ লাশের প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে। গতকাল সন্ধ্যায় চালক আনিস উদ্দিন ও হেলপার মহিদুল ইসলামের লাশ বাড়িতে পৌঁছুলে স্ত্রী, ছেলে-মেয়ে ও স্বজনদের বুকফাঁটা কান্নায় উপস্থিত সতীর্থ, কাঁচামাল ব্যবসায়ী,  শ্রমিক, কৃষক, গাড়ি ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন। এ সময় মহিদুলের বড় মেয়ে পুষ্পিতা (৩) ও ছোট মেয়ে ৩ মাসের মারিয়া লাশের দিকে অপলক দৃষ্টিতে চেয়ে চেয়ে দেখছিলো। বাদ মাগরিব নিজ নিজ গ্রামে জানাজা শেষে লাশ গোরস্থানে দাফন করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *