টাকা দিলেই ম্যানেজ!

 

 

জীবননগর ব্যুরো: টাকা দিলেই ম্যানেজ!। এমপি থেকে এমপির পিএস, এসপি, ওসি ও সাংবাদিকসহ ক্ষমতাসীনদলের সুবিধাভোগী নেতা। এসব আমার পকেটে! দুটি পত্রিকায় আমার বিরুদ্ধে খবর লেখা হয়েছিলো। টাকা দিয়ে সাংবাদিক ম্যানেজ করে আরেকটি পত্রিকায় উল্টো লিখে দিয়েছি। অতএব আমার বিরুদ্ধে পত্রিকায় লিখে কিছুই হবেনা। এ দম্ভোক্তি দেখিয়েছেন জীবননগর উপজেলার হরিহরনগর গ্রামের মাদকব্যবসায়ী মাদক সম্রাট মশিয়ার রহমান।

গত বুধবার দৈনিক মাথাভাঙ্গাসহ স্থানীয় দুটি পত্রিকায় সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ‘পুলিশ পরিচয়ে ফেনসিডিল ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়া এবং স্থানীয় ইউপি সদস্যকে প্রাণনাশের হুমকি’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর মাদক সম্রাট মশিয়ার রহমান নিজ গ্রামের সাধারণ মানুষের কাছে দম্ভোক্তি করে এসব কথা বলেছে।

উল্লেখ্য, জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের হরিহরনগর গ্রামের মতেহার আলীর ছেলে মশিয়ার রহমান এলাকায় একজন চিহ্নিত মাদকব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তালিকায় সে এ উপজেলার শীর্ষ মাদকব্যবসায়ী। গত ২১ জুন রাত ৯টায় একদল মাদকপাচারকারী গঙ্গাদাসপুর গ্রামের মাঠ দিয়ে যাওয়ার সময় পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা হরিহরনগর গ্রামের মশিয়ার রহমানের নেতৃত্বে একই গ্রামের আব্দুল করিম, মিঠু, ও মিন্টু মাদক পাচারকারীদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা নিজেদেরকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে পাচারকৃত ফেনসিডিল ও নগদ আড়াই লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনা এলাকায় জানাজানি হয়ে পড়লে একই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাকির হোসেনকে ওই মাদকব্যবসায়ী মশিয়ার রহমান মোবাইল ফোনে (০১১৯৪-৮০০০০০) প্রাণনাশের হুমকি দেয় এবং একই সাথে মাদকসম্রাট মশিয়ার রহমান ইউপি সদস্যকে বলে, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের এমপি ও এমপির পিএস, পুলিশ সুপার, ওসি ও সাংবাদিকসহ আওয়ামী লীগের সুবিধাভোগী নেতারা আমার পকেটে। কাজেই আমার বিরুদ্ধে লিখে ও কথা বলে কোনো লাভ হবে না।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *