টাকা চেয়ে না পেয়ে কয়েদি শহীদকে নির্মম নির্যাতন : প্রতিকার প্রার্থনা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা কারাগারের অভ্যন্তরে শহীদ নামক একজন বন্দিকে নির্মমভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। এ তথ্য জানিয়ে শহীদের মা চুয়াডাঙ্গা পোস্ট অফিসপাড়ার মরজিনা বেগম বলেছেন, যে সন্তানকে সুপথে ফেরাতে নিজ হাতে জেলখানায় রেখেছি, সেই ছেলেকে ঘুষের জন্য কারাগারের কথিত সিআইডি তরিকুল অমানবিকভাবে নির্যাতন করেছে। নির্যাতনের শিকার কয়েদি শহীদ হাটতেও পারছে না।

মরজিনা খাতুন লিখিতভাবে অভিযোগ করে প্রতিকার প্রার্থনা করে জেলা জজ, জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে লিখিত আবেদন করেছেন। চুয়াডাঙ্গা পোস্ট অফিসপাড়ার মৃত সণ্টু মিয়ার ছেলে শহীদকে তারই মা বেশ কিছুদিন আগে তাকে কারগারে রাখার ব্যবস্থা করেন। মরজিনা খাতুন বলেছেন, ছেলেকে কারাগারে নিরাপদে ভালোভাবে রাখতে তথা কাজ কম দেয়ার সিআইডি তরিকুলকে নিজ হাতে দু হাজার টাকা ঘুষ দিয়েছিলাম। পরে আরও টাকা দাবি করে। টাকা না দেয়ায় বৈধ জিনিস পেলেও অবৈধ জিনিস পাওয়ার অভিযোগ তুলে কয়েদি শহীদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে আহত করেছে। নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে শহীদ কারাগারে ঠিক মতো হাটতেও পারছে না। প্রধান কারারক্ষীর যোগসাজোশে কারাঅভ্যন্তরের কথিত সিআইডি তরিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরেই বেপরওয়া বলে অভিযোগ তুলে বলা হয়েছে, টাকা না পেয়ে শাহীদকে যে নির্মমভাবে নির্যাতন করা হয়েছে তা একজন মা হয়ে সহ্য করাও কঠিন। প্রতিকার চেয়েছি বিচার বিভাগের কাছে, প্রশাসনের কাছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *