ঝিনাইদহে হত্যার দায়ে সৎ পিতা গ্রেফতার

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার তালিয়ান গ্রামে ইসরাইল হোসেন (১১) নামে এক কিশোর হত্যার দায়ে পুলিশ তার সৎ পিতাকে গ্রেফতার করেছে। গতকাল সোমবার দুপুরে কিশোর ইসরাইল হোসেনের লাশ তালিয়ান গ্রামের একটি পাট ক্ষেত থেকে উদ্ধারের পর সন্দিগ্ধ হিসেবে সৎ পিতা ফারুক হোসেনকে পুলিশ আটক করে। বিকেলে পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে ইসরাইল হত্যার কথা স্বীকার করে ঘাতক ফারুক।

কালীগঞ্জের কোলাবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আক্তারুল ইসলাম জানান, নিহত ইসরাইলের বাবার মৃত্যুর পর তার মা ময়না বেগমের বিয়ে হয় উপজেলার তালিয়ান গ্রামের মমরেজ আলী মোল্লার ছেলে ফারুকের সাথে। আর ইসরাইল থাকতো নানা বাড়ি যশোরের বালিয়াবাইন গ্রামে। পুলিশের ভাষ্যমতে মাঝে মধ্যে ইসরাইল তার মায়ের সাথে দেখা করতে তালিয়ান গ্রামে আসতো। গত শনিবার ইসরাইল মায়ের সাথে দেখা করতে তালিয়ান গ্রামে আসে। রোববার বিকেলে সৎ পিতা ফারুক হোসেন ফুঁসলিয় কিশোর ইসরাইল হোসেনকে মাঠে নিয়ে যায়। এরপর তাকে একটি পাটের ক্ষেতে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে বাড়িতে আসে। বাড়ি এসে ফারুক তার স্ত্রী ময়নাকে বলে ইসরাইল হোসেন যশোর চলে গেছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তালিয়ান গ্রামের কৃষকরা পাটের ক্ষেতে ইসরাইল হোসেনের মৃতদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ দুপুরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠায়।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আমিনুল ইসলাম জানান, সৎ পিতা ফারুককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের সাথে ফারুক জড়িত বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। তবে কি কারণে ইসরাইলকে হত্যা করা হয়েছে সে বিষয় ফারুক মুখ খুলছে না বলে ওসি জানান।

Leave a comment

Your email address will not be published.