ঝিনাইদহে পুলিশের ওপর শিবিরের ককটেল ও ইট নিক্ষেপ

কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসেনের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও মুক্তির দাবিতে শিবিরের বিক্ষোভ

সংঘর্ষ

 

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: পূর্ব ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচিতে দেশের বিভিন্নস্থানে গতকাল বৃহস্পতিবার সহিংস হয়ে ওঠে শিবিরকর্মীরা। চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার শিল্প শহর দর্শনায় শিবির-পুলিশ সংঘর্ষে রফিকুল ইসলাম (১৯) নামে একজন নিহত হয়েছেন।

ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, ঝিনাইদহে শিবিরের মিছিল থেকে পুলিশের ওপর ককটেল ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটছে। এ সময় দু পুলিশসহ সাতজন আহত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শহরের কবি সুকান্ত সড়কে প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে। মিছিল থেকে ৪ কর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে শিবিরের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। তবে পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় কাউকে আটক বা গ্রেফতার করা হয়নি। মেহেরপুরের আমঝুপিতে বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসেনের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও মুক্তির দাবিতে ইসলামী ছাত্রশিবির সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শহরের শেরে বাংলা সড়ক থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলে নেতৃত্ব দেন শিবিরের কেন্দ্রীয় মাদরাসা আন্দোলন সম্পাদক মুহম্মদ মহিউদ্দিন। হাটের রাস্তা ঘুরে প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে সমাবেশ করে শিবিরকর্মীরা। সমাবেশে জেলা শিবিরের সভাপতি শেখ শাহজালাল, শহর সভাপতি ইবনুল ইসলাম পারভেজ, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম, ছাত্রনেতা মনিরুল, আলী আজম, সুমন হোসেন বক্তব্য রাখেন। সমাবেশ চলাকালে পুলিশ বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করলে শিবির কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে একটি ককটেল বিস্ফোরণ ও ইট-পাটকেল ছুঁড়তে থাকে। এ সময় পুলিশ ও শিবিরকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এতে দু পুলিশ ও পাঁচ শিবিরকর্মী আহত হয়।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি কাজী জালাল আহমেদ জানান, পুলিশ ৬ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ও ৩ রাউন্ড টিয়ারসেল ছুঁড়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। এ ঘটনার পর শহরের মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আমঝুপি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আমঝুপিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে মেহেরপুর জেলা ছাত্রশিবির। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে জেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে আমঝুপি হাট থেকে একটি মিছিল বের হয়ে আমঝুপি বাজারে চার রাস্তার মোড়ে এসে শেষ হয়। মিছিল শেষে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন শিবির সভাপতি সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, শিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি দেলাওয়ার হোসেনকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে তার ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হচ্ছে। ওই নির্যাতন মধ্যযুগীয় নির্যাতনকেও হার মানিয়েছে। তাই আগামী ২৪ অক্টোবরের পর বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির এ সরকারকে আর ক্ষমতায় দেখতে চাই না। তাই এ দিনের পর সকল নেতাকর্মীকে প্রস্তুত থাকতে হবে। মিছিলে ও সমাবেশে জেলা ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি সাব্বির আহম্মেদ, সাবেক সভাপতি তারেক মাসুদ সাইফুল, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক সাঈদসহ ছাত্রশিবিরের শতাধিক নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

এদিকে মেহেরপুর শিবির সভাপতি সাইফুল ইসলাম জানিয়েছেন, গতকাল বৃহস্পতিবার দর্শনায় পুলিশের গুলিতে শিবিরকর্মী নিহতের ঘটনায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ শুক্রবার সারাদেশের সাথে মেহেরপুর জেলায় দোয়া দিবস ও আগামী রোববার কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ ও চুয়াডাঙ্গা জেলার সাথে মেহেরপুরে অর্ধদিবস হরতাল পালন করবে মেহেরপুর ইসলামী ছাত্রশিবির।

রাজধানীর কমলাপুর ও মহাখালীতে শিবিরের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষের পর ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতারকৃত ৫ জন শিবিরকর্মীকে এক বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া দেশের বিভিন্নস্থানে শিবিরের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। অনেক এলাকায় বিক্ষোভ মিছিলের পাশাপাশি ভাঙচুর করেছে শিবির। মহাখালীতেও শিবিরকর্মীরা বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে।

এছাড়া রাজধানীর মহাখালী ওয়্যারলেছ গেট এলাকায় মিছিল থেকে বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে শিবির কর্মীরা। সকাল ৯টার দিকে হঠাত করে ২০/২৫ জন শিবিরকর্মী ঝটিকা মিছিল বের করে। এ সময় তারা সরকারবিরোধী স্লোগান দিতে থাকে। মিছিলটি হোটেল জাকারিয়ার সামনে পৌঁছুলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। তখন শিবিরকর্মীরা কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। তবে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ২ শিবির কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

রাজশাহী মহানগরীতে গতকাল দুপুরে পুলিশের সাথে ছাত্রশিবির নেতাকর্মীদের ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষে ৫ পুলিশসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। আহত পুলিশের কনস্টেবল আলমগীর, রাফি, মেহেদী, নুরুজ্জামান ও শাহরিয়ারকে প্রাথমিক চিকিত্সা দেয়া হয়েছে। আহত শিবির নেতাকর্মীরা অজ্ঞাত স্থানে চিকিত্সা নিচ্ছে বলে জানা গেছে।

কুমিল্লা মহানগরীতে গতকাল ঝটিকা মিছিল বের করে শিবিরের নেতাকর্মীরা। এতে বাধা দিলে ওই মিছিল থেকে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপসহ ৫/৬টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এ সময় বিপ্লব (২৪) নামে পুলিশের এক কনস্টেবল আহত হন। দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। কোতয়ালী মডেল থানার এসআই সামছুজ্জামান জানান, মিছিল থেকে নিক্ষেপ করা ইটের আঘাতে পুলিশের কনস্টেবল বিপ্লব আহত হয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জে গতকাল সকালে প্রায় ২০ মিনিট ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখিয়েছে শিবিরের নেতাকর্মীরা। এ সময় মহাসড়কের কয়েকটি স্থানে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করে তারা। একটি মিছিল ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করতে থাকে। ওই সময়ে বিক্ষোভকারীরা মহাসড়কের কয়েকটি স্পটে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সাতক্ষীরায় শিবির ঝটিকা মিছিল করেছে। সকাল ১০টার দিকে মিছিলটি বের হয়। সীতাকুণ্ডে শিবিরের বিক্ষোভ
মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় সভাপতির মুক্তির দাবিতে দেশব্যাপি বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে চট্টগ্রামে মিছিল সমাবেশ করেছে ইসলামী ছাত্রশিবির। তবে কোথায়ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *