ঝিনাইদহে গভীর রাতে বিদ্যুত অফিসের হানা ॥ ধরা পড়লো চোরাই ইজিবাইক চার্জ গ্যারেজ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ বিদ্যুত অফিস (ওজোপাডিকো) কর্তৃক জেলার অবৈধ সংযোগ, মিটার বিচ্ছিন্নকরণ অভিযানের মধ্যে জেলা সদরের সাধুহাটি-ডাকবাংলা বিদ্যুত সাবস্টেশনের (আঞ্চলিক ফিডার) গ্যাটিজ নুর আলম লাইনম্যান রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে দীর্ঘদিন এলাকাজুড়ে অবৈধ মিটার ও সংযোগ বাণিজ্য করে আসছে মর্মে জানতে পেরে অবৈধ ১৯টি মিটার খুলে এনে গ্যাটিজ নুর আলম লাইনম্যান রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ঝিনাইদহ শহরের আরাপপুরে অবৈধ রিমোট কট্রোল মিটার ব্যাবহার করে কোটি কোটি টাকার বিদ্যুত গিলে খাওয়া আমিনুল ডাক্তার ও সাবেক মেম্বার ওবাইদুলের ইজিবাইক গ্যারেজ জরিমানাসহ বন্ধ করার পরে এবার বিদ্যুত অফিসের অভিযানে ধরা পড়লো দীর্ঘদিনের অবৈধ চোরাই বিদ্যুতে ইজিবাইক চার্জ দেয়া গ্যারেজ চার্জঘর।
ঝিনাইদহ বিদ্যুত অফিস (ওজোপাডিকো) ও আরাপপুর এলাকার স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, বিদ্যুত অফিসের গোপনসূত্রে খবর আসে শহরের আরাপপুরের এতিমখানা মোড়ের চার্জ ঘর নামে একটি বাড়িতে দীর্ঘদিনের অবৈধ চোরাই বিদ্যুতে ইজিবাইক চার্জ দেয়া গ্যারেজ চলমান আছে। খবর পেয়ে ৯ আগস্ট গভীর রাতে ঝিনাইদহ বিদ্যুত অফিসের বিশেষ অভিযান টিম আরাপপুরের এতিমখানা মোড়ের মতিনের ছেলে খালেদ ইবনে মতিনের ইজিবাইক চার্জ দেয়া চার্জ ঘরে হানা দিয়ে বাড়ির ছাদের ওপরে মিটারবিহীন মূল লাইন থেকে অবৈধভাবে চোরাই বিদ্যুতে ইজিবাইক চার্জ দেয়া সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও মিটার জব্দ করেছে।
অভিযানের দু দিন পরে অভিযুক্ত খালেদ ইবনে মতিনকে ৪ লাখ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ অভিযানে অংশ নেন ঝিনাইদহ বিদ্যুত অফিসের সহকারী প্রকৌশলী অনুপম চক্রবর্তী, উপপ্রকৌশলীদের মধ্যে রফিকুল ইসলাম, উত্তম বাবু, আ. হালিম, একরামুল হক, লাইনম্যান মিলু মুন্সি ও লাইন হেলপার আ.হালিম প্রমুখ।
এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ বিদ্যুত অফিসের নির্বার্হী কর্মকর্তা পরিতোষ চন্দ্র বলেন, অবৈধ সংযোগ, মিটার, বিচ্ছিন্নকরণ অভিযানের অংশ হিসেবে ওই অভিযানটি পরিচালনা করা হয়েছে। আর জেলার জনসাধারণের ও ঝিনাইদহ বিদ্যুত অফিসের কেউ কোনো প্রকার অবৈধ বিদ্যুত সম্পর্কিত কাজের সাথে যুক্ত থাকলে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। জেলাব্যাপি অবৈধ সংযোগ, মিটার বিচ্ছিন্নকরণে আমাদের এ অভিযান চলতে থাকবে বলেও তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এ বিষয়ে অভিযুক্ত খালেদ ইবনে মতিনের সাথে কথা বলতে চাইলে সাংবাদিকদের সাথে তিনি কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

Leave a comment

Your email address will not be published.