ঝিনাইদহের ইস্তেফাপুরে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে মহন মুন্সিকে কুপিয়ে খুন

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের ইস্তেফাপুরে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে মহন মুন্সি নামের এক যুবকে কুপিয়ে খুন করেছে প্রতিপক্ষরা। সে ওই গ্রামের হাফিজুর রহমানের একমাত্র ছেলে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে একই গ্রামের মুসলিম নামের আরও এক যুবক। তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে একই গ্রামের হাসানুজ্জামান তিতু ও তার শ্যালক জেলা শহরের মুরারীদহ গ্রামের খোকনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহতের চাচা ফিদু মুন্সি বলেন, শুক্রবার রাত ১১টার দিকে বারইখালী গ্রামের একটি চায়ের দোকান থেকে ৩ বন্ধুর সাথে বাড়ি ফিরছিলেন তার ভাতিজা মহন মুন্সি (২৮)। এ সময় আগে থেকেই ওত পেতে থাকা এলাকার চিহ্নিত ৭-৮ সন্ত্রাসী তাদের ওপর হামলা করে তাকে কুপিয়ে আহত করে। স্থানীয়রা মহনকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে পৌনে ১২টার দিকে সেখানে তার মৃত্যু হয়। এ সময় মারুফ নামের অপরজন পালিয়ে রক্ষা পেলেও সন্ত্রাসীদের হামলায় মুসলিম (২৫) নামের অপর যুবক সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হন। সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ আজবাহার আলী মাথাভাঙ্গাকে জানান, ওই গ্রামের হাসানুজ্জামান তিতুর সাথে ফিরোজ আহমেদ ফেদুর জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে আদালতে মামলাও চলছে। গত শুক্রবার রাত ১১টার দিকে ফিরোজ আহমেদ ফেদু পক্ষের মোহন মুন্সি, মুসলিম বিশ্বাস ও অপর একজন ইস্তেগাপুর বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় আগে থেকে ওত পেতে থাকা প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের ওপর হামলা করে এবং তাদেরকে কুপিয়ে আহত করে ফেলে রেখে যায়। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোহনকে মৃত ঘোষণা করেন। চিকিৎসক জানান, রক্তক্ষরণজনিত কারণে অনেক আগেই মোহনের মত্যু হয়েছে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। হামলায় আহত মুসলিম বিশ্বাস ও অন্যজনকে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার মাথাভাঙ্গাকে বলেন, জমি নিয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জের ধরে মহন মুন্সি নামের ওই যুবকক খুন করেছে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় আহত হন আরও এক যুবক। তিনি আরও জানান, ঘটনার কিছু সময় পরে জেলা শহরের মুরারীদহ গ্রামে অভিযান চালিয়ে মোহন হত্যার প্রধান পরিকল্পনাকারী একাধিক হত্যা মামলার আসামি ইস্তেফাপুর গ্রামের হানুজ্জামান তিতু ও তার শ্যালক খোকনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *