জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাত

 

 

উষ্ণ অভিনন্দন : ভেদাভেদ ভুলে সাংগঠনিক কাজ যথাসময়ে সম্পন্ন করা নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠিনের পর নেতাকর্মীদের মধ্যে চাঙ্গাভাব ফুঁটে উঠেছে। তবে ছিটকে পড়া এবং কাঙ্ক্ষিত অবস্থান না পাওয়া অনেকেই পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে শুরু করেছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মুহা. অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, যুগ্ম আহ্বায়ক মাহমুদ হাসান খান বাবুসহ যুগ্ম আহ্বায়কেরা গতপরশু দলের চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করেন। এ সময় চেয়ারপারসন উপস্থিত নেতাদের বলেন, সকল ভেদাভেদ ভুলে সকলকে সাথে নিয়ে যথাসময়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের আহ্বান জানান।

এদিকে আহ্বায়ক কমিটি গঠনের পর ঢাকা থেকে নেতৃবৃন্দ একে একে চুয়াডাঙ্গায় ফিরতে শুরু করেছেন। গতকাল বেলা ১১টার দিকে আহ্বায়ক অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস চুয়াডাঙ্গায় ফিরলে দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে ফুলের মালা পরিয়ে বরণ করেন। আগামী শুক্রবার ফিরছেন ১ম যুগ্মআহ্বায়ক মাহমুদ হাসান খান বাবু। গতরাতে ফিরেছেন যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা।

জানা গেছে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দ বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। গত পরশুমঙ্গলবার রাত ৯টায় জেলা বিএনপির নবঘোষিত আহ্বায়ক মুহা. অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, ১ম যুগ্মআহ্বায়ক মাহমুদ হাসান খান বাবু, যুগ্মআহবায়ক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা, যুগ্মআহ্বায়ক খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা, যুগ্মআহ্বায়ক মজিবুল হক মালিক মজু সকলে একযোগে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে উপস্থিত হন। দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাত করেন।ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এ সময় জেলা বিএনপির র্শীষনেতৃবৃন্দ বিএনপি চেয়ারপারসনের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও দোয়া কামনা করেন। বলেন কমিটির ওপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে যাতে পালন করতে পারি সে জন্য দোয়া প্রার্থী। এ সময়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দকে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, এ কমিটি জাতির চরম সঙ্কট উত্তরণ ও গণতন্ত্র পুনর্রুদ্ধারে অর্থবহ ভূমিকা রাখতে পারবে বলে আশা করছি।

তিনি সকল সঙ্কীর্ণতা পরিহার করে ও পারস্পরিক ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে যথাসময়ের মধ্যে সাংগঠনিক কাজ সম্পন্ন করারও নির্দেশ দেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা রফিকুল হাসান তনু ও জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্মআহ্বায়ক ফিরোজ সরোয়ার রোমান প্রমুখ।

এদিকে গতকাল বেলা ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গায় ফেরেন আহ্বায়ক অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস। চুয়াডাঙ্গায় পৌঁছানো মাত্রই তাকে ফুল দিয়ে সংবর্ধিত করেন দলীয় নেতকর্মীরা। এ সময় তিনি বলেন, দরের দুঃসময়ে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া যে যায়িত্ব দিয়েছেন তা যথাযথভাবে যাতে পালন করতে পারি সে জন্য সকলের সহযোগিতা চাই। তিনি সরকার বিরোধী আন্দোলনকে জোরদার করার প্রত্যায় ব্যক্ত করেন। সংবর্ধনা প্রদানকালে চুয়াডাঙ্গা বিএনপির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য অ্যাড. এমএম শাহজাহান মুকুল, সিরাজুল ইসলাম মনি, রউফুন নাহার রীনা, আবু বক্কর সিদ্দিক, আবু আলা সামসুজ্জামান, ইসামুল হোসেন, মাও. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। আবু আলা সামসুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

উল্লেখ্য, চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি ছিলো বহুভাগে বিভক্ত। গত ২০ এপ্রিল জেলা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। এরপরই গঠিত হয় আহ্বায়ক কমিটি। এ কমিটি অনুমোদন দেন চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। কমিটি প্রকাশের পরদিন গতপরশু মঙ্গলবার রাতে আহ্বায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দ বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাত করেন। গতকাল আহ্বায়ক ও যুগ্মআহ্বায়কদের কয়েকজন ফিরেছেন। আগামী শুক্রবার ফিরছেন ১ম যুগ্মআহ্বায়ক কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা বাবু খান।

নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটি জেলা বিএনপির সকল বিরোধের ইতি টেনে কি ঐক্যের দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারবে? এ প্রশ্নের জবাবের জন্য অপেক্ষার বিকল্প নেই। স্থানীয় রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহল এ মন্তব্য করে বলেছে, যেহেতু বহুভাগে বিভক্ত ছিলো। সেহেতু অনেকেই পড়বে বিশ্বাস অবিশ্বাসের দোলাচালে। তৃণমূল পর্যায়ের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরু হলেই স্পষ্ট হবে সকল পৌর ও থানাসহ জেলা কমিটির কোন্দল কোন পর্যায়ে যাবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *