জীবননগর হাসাদাহ স্কুলের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্র পেটানোর অভিযোগ

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার হাসাদাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ইমাজ উদ্দিন রানাকে পেটানো হয়েছে। মাথার চুল বড় হওয়ার অজুহাতে ইংরেজি শিক্ষক তুহিন উদ্দিন ছাত্র রানাকে পেটালেও রানার অভিযোগ ভিন্ন। তার অভিযোগ রানা ওই শিক্ষকের নিকট প্রাইভেট পড়া বন্ধ করায় শিক্ষক তুহিন আক্রোশে তাকে  পিটিয়েছেন। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে গতকাল রোববার জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে ইমাজ উদ্দিন রানা হাসাদাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণির ছাত্র। আগামী বছর সে এসএসসি পরীক্ষার্থী। স্কুলের ইংরেজি শিক্ষক তুহিন উদ্দিনের নিকট সে প্রাইভেট পড়তো। সম্প্রতি প্রাইভেট পড়া বন্ধ করে দেয়।  ইউএনও বরাবর দাখিলকৃত অভিযোগ থেকে জানা যায়, গতকাল সকালে সে স্কুলে গেলে শিক্ষক তুহিন তাকে ডাকেন। স্কুলের বারান্দাতে এলে তোর চুল বড় কেন এ কথা বলে তাকে পেটানো হয়। রানার পিতা জাকির হোসেন জানান, তার ছেলে রানার চুল বড় এ কথা ঠিক না। তবে বর্তমানে ছুলের যে কাটিং চলছে সেভাবেই সে চুল কেটেছে। তার চুল যদি বড় হয়েই থাকে তাহলে অভিভাবক হিসেবে আমাকে বলা উচিত ছিলো; কিন্তু তা না করে আমার ছেলেকে পেটানো হয়েছে। আমি এর সুবিচার চাই।

Leave a comment

Your email address will not be published.