জীবননগর মিনাজপুরে মহিলামেম্বারকে মারপিট : পিতা-পুত্র গ্রেফতার

 

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার বাঁকা ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মেম্বার মিনাজপুর গ্রামের রহিমা খাতুন লাঞ্ছিত হয়েছেন। আনন্দ স্কুলের চাকরির একটি কাগজে স্বাক্ষর করাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটে। লাঞ্ছিত মহিলা সদস্যর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত পিতা-পুত্রকে গ্রেফতার করেছে।

বাঁকা ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত আসনের মেম্বার মিনাজপুর গ্রামের আনারুল ইসলামের স্ত্রী রহিমা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, একই গ্রামের খোকন মাস্টারের ছেলে মোমিনউদ্দিন আনন্দ স্কুলে শিক্ষকতার চাকরি পেয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে তারা এলাকার ইউপি সদস্য রহিমা খাতুনের নিকট যায় ওই চাকরি সংক্রান্ত কাগজে স্বাক্ষর নিতে। কিন্তু রাতে স্বাক্ষর দিতে অস্বীকার করলে বাক-বিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। এ ঘটনাকে কেন্ত্র করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় খোকন ও মোমিন মিনাজপুর বাজারের চার দোকানে ইউপি সদস্য রহিমাকে পিটিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় তিনি থানায় অভিযোগ করলে রাতেই অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে।

এদিকে এলাকাবাসী জানিয়েছে, মহিলা সদস্য রহিমা খাতুনের নিকট স্বাক্ষর নিতে গেলে তিনি তাদের নিকট ১০ হাজার টাকা উৎকোচ দাবি করেন। ফলে তারা পাশের সংরক্ষিত আসনের সদস্য সাজেদা খাতুনের নিকট থেকে ওই কাগজে স্বাক্ষর নেন তাদের কাজ চালিয়ে নেন। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার রাতে রহিমা খাতুন মোমিনের পিতা খোকনের চায়ের দোকানে গিয়ে প্রতিবাদ করলে একপর্যায়ে ঝগড়া-বিবাদের সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে তাকে দোকানের মধ্য থেকে সরিয়ে দিলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ আনেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.