জীবননগর কাশিপুরের মুদি ও সার ব্যবসায়ী আজাদের কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি: জীবননগরের কাশিপুর গ্রামের প্রতিষ্ঠিত মুদি ও সার ব্যবসায়ী আজাদ হোসেনের নিকট মোবাইলফোনে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার অজ্ঞাত চাঁদাবাজ নিজেকে চরমপন্থি দলের বিভাগীয় নেতা পরিচয় দিয়ে মোবাইলফোনে এ চাঁদা দাবি করেন। ধার্যকৃত চাঁদার টাকা দেয়া না হলে পাটির গেরিলারা অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করবে বলে আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছে আজাদের। অজ্ঞাত চাঁদাবাজ ফোনে এ হুমকি দেয়ায় ওই ব্যবসায়ী আতঙ্কিত হয়ে ফোন বন্ধ করে দিয়েছেন। ওই একই মোবাইলফোন নম্বর থেকে গত সোমবার ও মঙ্গলবার দেহাটি পিয়াস গ্রুফ অ্যা- প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এসএম হাফিজ আল আসাদের নিকট ১ কোটি টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। গতকাল দৈনিক মাথাভাঙ্গা এ সংবাদ প্রকাশিত হলে ব্যবসায়ী আজাদ হোসেন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সাংবাদিকদের নিকট এ অভিযোগ তুলে ধরেন। গ্রামঞ্চলে মোবাইলফোনে নীরব চাঁদাবাজি চলছে। ব্যবসায়ী আজাদ হোসেন ও পিয়াস ব্রিক্সের ব্যবস্থপনা পরিচালক মুখ খুলেও অনেকে ভীতু ও আতঙ্কিত হয়ে ধার্যকৃত চাঁদার টাকা দরকষাকষি করে বিভিন্ন মাধ্যমে পরিশোধ করছে বলে প্রাপ্ত তথ্য অনুসন্ধান নিয়ে জানা গেছে।
অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, জীবননগর উপজেলার নবগঠিত কেডিকে ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে মুদি ও সার ব্যবসায়ী আজাদ হোসেন দীর্ঘদিন যাবত এলাকায় সুনামের সাথে ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। গত মঙ্গলবার অজ্ঞাত চাঁদাবাজ নিজেকে চরমপন্থি দলের বিভাগীয় নেতা পরিচয় দিয়ে ০১৯৯৬৫৬৭৫০৬ বাংলা লিষ্ক নম্বর থেকে ব্যবসায়ী আজাদ হোসেনের নিকট ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। ধার্যকৃত চাঁদার টাকা দিতে গড়িমসি ও পুলিশকে জানালে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়।
তথ্য অনুসন্ধান নিয়ে জানা গেছে, ওই চাঁদাবাজের ব্যবহৃত নিবন্ধিত সিমকার্ডটির ভোটার আইডিতে ইস্্ররাফিল হোসেন, পিতা মোমিন মোল্লা, মাতা সাহিদা বেগম, গ্রাম কাশিপুর, উপজেলা জীবননগর ও জেলা চুয়াডাঙ্গা উল্লেখ রয়েছে। যার ভোটার আইডি কার্ড নং ১৯৮৩১৮১৫৫৭৬৫০৭৭৩৩। জন্ম তারিখ ১৮ আগস্ট ১৯৮৩ বলে সূত্রটি নিশ্চিত করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.