জীবননগর উথলীর ঘপঘপি শ্মশান ঘাট প্রাঙ্গণে লীলাকীর্ত্তন অনুষ্ঠানে এমপি টগর

উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আবারও নৌকা মার্কায় ভোট দিন
জীবননগর ব্যুরো: আগামী নির্বাচনে আবারও নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে জয়ী করার আহ্বান জানিয়েছেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজী মো. আলী আজগার টগর। তিনি বলেন, দেশের উন্নয়ন ও দেশকে এগিয়ে নেয়ার জন্য আগামী নির্বাচনেও আওয়ামী লীগকে জয়যুক্ত করুন। আওয়ামী লীগকে আবার দেশ সেবার সুযোগ দিন। গতকাল শনিবার বিকেল ৪টায় জীবননগর উপজেলার উথলী ঘপঘপি শ্মশান ঘাট প্রাঙ্গণে লীলাকীর্ত্তন ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, ১৯৯১ সালে বিএনপি সরকারের সময়ে তাদের সীমাহীন দুর্নীতিতে দেশের কৃষিখাত মুখ থুবড়ে পড়েছিলো। বিএনপি চেয়েছিলো দেশ যেন সবসময় ভিক্ষুকের জাতি হিসেবে থাকে। ১৯৯৬ সালে আ.লীগ সরকার গঠন করে কৃষিখাতের উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেয়। খাদ্য ঘাটতির দেশকে খাদ্যে উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত করে। দেশ আজ কৃষিতে বিপ্লব ঘটিয়েছে। সার ও ডিজেলসহ সব ধরনের কৃষি উপকরণ কৃষকদের ক্রয় ক্ষমতার ভেতরে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে এদেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতি নির্যাতন, জুলুম করেছিলো এবং জমি-জায়গা জবরদখল করে নিয়েছিলো। তারা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নারীদের প্রকাশ্যে ধর্ষণ করেছে। পাকিস্তানের ওই প্রেতাত্মা বিএনপি আবারও ক্ষমতায় আসার দিবাস্বপ্ন দেখছে। তাদের ওই দিবাস্বপ্ন, স্বপ্ন থেকে যাবে। তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে বলেন, ২০০৬ সালে ২৪ ঘণ্টায় বিদ্যুত পেতাম মাত্র ৪ ঘণ্টা। ওই সময় দেশে বিদ্যুত উৎপাদন হতো মাত্র ৩ হাজার মেগাওয়াট। বর্তমানে বিদ্যুত উৎপাদন হচ্ছে ১৪ হাজার মেগাওয়াট। আওয়ামী লীগ সরকার শিক্ষা ক্ষেত্রেও আমূল পরিবর্তন এনেছে। জানুয়ারি মাসের প্রথম দিনই শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেয়া হয়েছে। সরকার কৃষকদের জন্য ১০ টাকায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার ব্যবস্থা করেছে। মাত্র ৪ শতাংশ সুদে কৃষক ঋণ নিতে পারে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, খাদ্যে স্বনির্ভরতা অর্জন, শিক্ষাক্ষেত্রে সাফল্য, কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা, দারিদ্র্য দূরীকরণ, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সেবা এবং সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে। কিন্তু জামায়াত-বিএনপি এ উন্নয়নের ধারা বাধাগ্রস্ত করতে বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তাদের এ ষড়যন্ত্র রুখতে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।
উথলী ঘপঘপি শ্মশান ঘাট কমিটির সভাপতি বাবু জীবন সেনের সভাপতিত্বে এবং শ্রী অসীত সরকারের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলম, উথলী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন খাঁন, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বাবু কিশোর কুমার কু-ু প্রমুখ। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন শ্রী সরজিৎ কর্মকার ও বাবু রামচন্দ্র রাজবংশী। সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগর উথলী ঘপঘপি শ্মশান ঘাটের সার্বিক উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *