জীবননগর উথলীতে ট্রেনে কেটে দাদির মর্মান্তিক মৃত্যু

আহত নাতি জুনায়েদের অবস্থা আশঙ্কাজনক
জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার উথলী রেলস্টেশনের অনতিদূরে রেললাইন পার হওয়াকালে ট্রেনে কেটে দাদি পায়রা খাতুন (৪৮) মর্মান্তিকভাবে নিহত হয়েছেন। এ সময় ট্রেনের ধাক্কায় আহত হয়েছেন সাথে থাকা নাতি ছেলে জুনায়েদ ওরফে জুবায়ের (৭)। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। জুনায়েদকে যশোর সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। গতকাল রোবাবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও রেলসূত্রে জানা যায়, ঝিনাইদহ জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার সাবদালপুর বেলেডাঙ্গা গ্রামের মৃত এরশাদ আলীর স্ত্রী পায়রা খাতুন তার নাতি ছেলে জুনায়েদ ওরফে জুবায়েরকে সাথে নিয়ে জীবননগর উপজেলার সেনেরহুদা গ্রামের জুনায়েদের নানার বাড়িতে বেড়াতে আসেন। সন্ধ্যায় খুলানগামী গোয়ালন্দ ট্রেনযোগে তিনি বাড়ি সাবদালপুরে ফিরে যাওয়ার উদ্দেশে রেললাইন পার হচ্ছিলেন। এ সময় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা কপোতাক্ষ ট্রেনে কাটা পড়ে পায়রা খাতুন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। মারাত্মকভাবে আহত হয় জুনায়েদ। ট্রেনের ধাক্কায় সে রেল লাইনের পাশে ছিটকে পড়ে। জুনায়েদকে উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে যশোর হাসপাতালে রেফার করেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহত পায়রা খাতুনের লাশ রেললাইনের পাশে পড়ে ছিলো। খবর পেয়ে পোড়াদহ থেকে রেল পুলিশ লাশ উদ্ধারে রওনা হয়েছে বলে রেলের একটি সূত্র জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *