জীবননগর আন্দুলবাড়িয়ায় ইটভাটায় যাতায়াতে ভৈরব নদে নির্মিত রাস্তা প্রশাসনের নির্দেশে অপসারণ

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া এলাকায় একটি ইটভাটায় যাতায়াতের জন্য ভৈরব নদের বুকে অবৈধভাবে নির্মিত একটি রাস্তা প্রশাসেনর নির্দেশে অপসারণ করা হয়েছে। ভৈরবের স্বাভাবিক পানি প্রবাহ ঠিক রাখতে এ নিদের্শ দেয়া হয়েছিলো। গত ৬ জুন দৈনিক মাথাভাঙ্গায় এ নিয়ে সচিত্র সংবাদ প্রকাশিত হলে ইউএনও নূরুল হাফিজ গত বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে এ নির্দেশ দেন। এদিকে ভৈরব নদের বুকে অবৈভ ভাবে গড়ে তোলা অর্ধশত পুকুরও অপসারণ পক্রিয়ায় রয়েছে বলে জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার গতকাল মঙ্গলবার জানিয়েছেন।

ভৈরব নদের জমি দখল করে ইটভাটায় যাতায়াতের রাস্তা ও পুকুর খননকারীদেরকে ১ সপ্তাহের মধ্যে বাঁধ অপসারণ করে নদ দখলমুক্ত করার নির্দেশ দেন প্রথম শ্রেণির এ ম্যাজিস্ট্রেট। এছাড়াও কর্চ্চাডাঙ্গা শশ্মানঘাটের পাশে ইটভাটার ইট বহনের সুবিধার্তে নদের মাঝ বরাবর দেয়া বাঁধ ২ দিনের ভেতর ভাটামালিক আজিম খানকে সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো। এ নির্দেশ অমান্য করা হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে সে সময় জানিয়েছিলেন তিনি। তার এ নির্দেশে সাড়া দিয়ে আজিম খান ভাটায় যাতায়াতের জন্য নির্মিত রাস্তা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে অপসারণ করে নিয়েছেন। এখন চলছে অবৈধভাবে নির্মিত পুকুরের বাধ অপসারণ কাজ।

উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন বন্ধ থাকার পর আবারো দখল হচ্ছে জীবননগর উপজেলার ওপর দিয়ে বহমান একমাত্র ভৈরব নদ। প্রভাবশালী ভূমি দস্যুরা বিভিন্ন ভাবে নদের দুই পাশ দখল করে ফসলের চাষ করছে। আবার কেও কেও নদের মাঝে মাটি কেটে বাঁধ দিয়ে তৈরিকৃত পুকুরে করছে মাছ চাষ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *