জীবননগরে শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে শিক্ষকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ

 

স্টাফ রিপোর্টার: জীবননগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে ডিপিওর নাম করে শিক্ষকদের শোকজ করার ভয় দেখিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা চাঁদা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে জানা গেছে গতকাল শনিবার জীবননগর উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী আব্দুল খালেক জেলা শিক্ষা অফিসারের নাম করে বিএড পরীক্ষার অনুমতি স্থগিত করায় শিক্ষকদের শোকজ করার ভয়ভীতি দেখিয়ে ১৫ শিক্ষকের নিকট থেকে এক হাজার ৫শ টাকা দাবি করেন। ইতোমধ্যে ৬ শিক্ষক আব্দুল খালেকের নিকট ৯ হাজার টাকা প্রদান করেছেন। আর বাকি শিক্ষকরা টাকা দিতে বিলম্ব করায় তাদেরকে শোকজ করাসহ বিভাগীয় মামলার হুমকি প্রদান করেন।

এদিকে ভুক্তভোগী শিক্ষকরা ভীত সন্তস্ত হয়ে পড়েছেন। এ ব্যাপারে বেশ কয়েকজন শিক্ষক নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক অভিযোগ করে বলেন, শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী আব্দুল খালেক জেলা শিক্ষা অফিসারের নাম করে আমাদের কাছে টাকা দাবি করেন। প্রথমে আমরা টাকা দিতে অপরাগত জানালে তিনি আমাদের জেলা শিক্ষা অফিসারের দিয়ে শোকজ করার কথা বলেন, তার ভয়ে আমরা বাধ্য হয়ে টাকা প্রদান করি।

জানা গেছে আব্দুল খালেক তার ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার বিভিন্ন কাজের নাম করে শিক্ষকদের নিকট থেকে মোটা অঙ্কের উৎকোচ গ্রহণ করে থাকে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে আব্দুল খালেকের সাথে কথা বলার জন্য মুটোফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোনটি বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এদিকে জেলা শিক্ষা অফিসার সাইফুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমি কোনো শিক্ষকের নিকট থেকে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা নেয়ার জন্য কাউকে বলেনি। যে এ কথাটি বলেছে সে সম্পন্ন মিথ্যা বলেছে। তিনি আরও বলেন, যে ব্যক্তি আমার নাম করে শিক্ষকদের ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের  নিকট থেকে চাঁদা আদায় করেছে যদি এমন কোনো সঠিক প্রমাণ থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *