জীবননগরে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের তোপের মুখে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট!

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর শহরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার একপর্যায়ে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কতিপয় নেতাকর্মীর তোপের মুখে পড়েন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামাল হোসেন। ছাত্রলীগের এক নেতার মোটরসাইকেল চেকিংকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার একপর্যায়ে নাজেহাল অবস্থায় তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার কাজ বন্ধ করে ফিরে যান। জীবননগর থানা পুলিশের সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে ৯ হাজার ৫শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

গতকাল বিকেলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামাল হোসেন জীবননগর বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি ও বিক্রির প্রমাণ পেলে তিনি শাহাজান হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টকে ৫ হাজার, আল্লারদান হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টকে ২ হাজার, সালাম হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টকে ১ হাজার ও নাজিম হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন। একই সময়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বাজরের ডাচবাংলা ব্যাংকের সামনে মোটরসাইকেলের কাগজপত্র চেকিং শুরু করেন। এসময় একটি মোটরসাইকেলের কাগজপত্র না থাকায় ৫শটাকা জরিমানা আদায় করে পরবর্তীটির কাগজপত্র দেখতে চান। কাগজ দেখতে চাইলে মোবাইলফোনে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীদের ঘটনাস্থলে ডেকে নেন ওই ছাত্রলীগ নেতা। এসময় তারা ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর চড়াও হয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ তাকে নাজেহাল করা হয়। ঘটনার আকস্মিকতায় হতভম্ব হয়ে একপর্যায়ে আদালতের কার্যক্রম বন্ধ করে চলে যান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের এ নাজেহালের ঘটনায় জনমনে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *