জীবননগরের সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদের ইন্তেকাল

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য সেনেরহুদা গ্রামের সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না…………রাজেউন)। দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ৪৯ বছর বয়সে মারা যান তিনি। গতকালই সন্ধ্যায় নামাজে জানাজা শেষে শোকাহত পরিবেশে তাকে সেনেরহুদা গ্রামের কবরস্থানে শায়িত করা হয়। তার মৃত্যুতে বিভিন্ন ব্যক্তি ও মহল গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

জীবননগর উপজেলার উথলী ইউনিয়নের সেনেরহুদা গ্রামের মৃত মসলেম আলী মাস্টারের ছেলে এসএম আবুল কালাম আজাদ দীর্ঘদিন ধরে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জড়িত ছিলেন। ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক আজকালের সংবাদের তিনি জীবননগর উপজেলা প্রতিনিধি ছিলেন। সম্প্রতি আজাদের পাকস্থলিতে পাথর ধরা পড়ে। চিকিৎসকরা দ্রুত সেটি অপারেশনের পরামর্শ দেন। এ অবস্থায় তার ডায়াবেটিক ও রক্তের উচ্চচাপ বৃদ্ধি পেলে গত রোবাবর রাতে তাকে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। গতকাল সকাল থেকে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ডা. রফিকুল ইসলাম দ্রুত তাকে ঢাকা বারডেম হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। বিকেলে অ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকা নেয়ার পথে ঝিনাইদহ পৌঁছুলে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখানেই তিনি ইন্তেকাল করেন। তার মৃত্যুর সংবাদ এসে পৌঁছুলে পরিবারের সদস্য, সহকর্মী ও এলাকাবাসী কান্নায় ভেঙে পড়েন। বাদ মাগরিব সেনেরহুদা ঈদগাঁ ময়দানে নামাজে জানাজা শেষে গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়। সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ মা, স্ত্রী, ৯ বছরের একমাত্র ছেলে সিহান, ১ ভাই ও ৪ বোন রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুতে জীবননগর প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের পক্ষে সভাপতি আনোয়ারুল কবির ও সাধারণ সম্পাদক এমআর বাবু, দর্শনা প্রেসক্লাবের পক্ষে সাধারণ সম্পাদক ইকরামুল হক পিপুল, জামায়াতে ইসলামীর জীবননগর উপজেলা আমির অধ্যাপক খলিলুর রহমান, উথলী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, সীমান্ত ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, সাংবাদিক নারায়ণ ভৌমিক, আবু সাঈদ বাবুল, আবজালুর রহমান ধীরু, শেখ সামসুল আলম, আতিয়ার রহমান, সালাউদ্দীন কাজল, মুন্সি রায়হান উদ্দিন, কাজী সামসুর রহমান চঞ্চল, মামুন উর রহমান, আকিমুল ইসলাম, সামাজিক ব্যক্তিত্ব আবুল কালাম আজাদ, শেখ ইলিয়াছ উদ্দিন প্রমুখ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তারা মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনাসহ শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *