জীবননগরের বেনীপুর ও দামুড়হুদার মুন্সিপুরসীমান্তে বাংলাদেশি দুজন বিএসএফ’র হাতে আটক

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার বেনীপুর সীমান্ত থেকে ঝন্টু মিয়া (৩৭) নামে এক বাংলাদেশি গরুব্যবসায়ীকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। গতকাল রোববার সকালে তাদের ফেরত চেয়ে বিজিবি-বিএসএফ’র কাছে চিঠি দেয়। পরে বেলা ১টার দিকে উপজেলার বেনীপুর সীমান্তে বিজিবি ও বিএসএফ’র মধ্যে কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও আটককৃত বাংলাদেশিকে ফেরত দেয়নি বিএসএফ। অপরদিকে দামুড়হুদার মুন্সিপুর সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে এক জন বিএসিএফ’র হাতে ধরা পড়েছে।

বিএসএফ’র বরাত দিয়ে বিজিবি জানিয়েছে, অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে আটককৃত বাংলাদেশিকে বিএসএফ কৃষ্ণনগর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। এখন তাকে আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে দেশে ফিরতে হবে।

এলাকাবাসী ও বিজিবি সূত্রে জানা যায়, গতকাল রোববার রাত ৩টার দিকে জীবননগর উপজেলার বেনীপুর গ্রামের বিত্তপাড়ার মতেহার আলী ওরফে মতের ছেলে ঝন্টু মিয়াসহ ৫-৬ জন গরুব্যবসায়ী বেনীপুর সীমান্তের ৬১নং মেন ও ৩নং সাব পিলারের কাছ দিয়ে ভারতে অনুপ্রবেশ করে। এ সময় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ’র লোনাগঞ্জ ক্যাম্পের টহলরত সদস্যরা তাদেরকে ধাওয়া করলে অন্যরা পালিয়ে এলেও ঝন্টু মিয়াকে ধরে ফেলে। চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর আনোয়ার জাহিদ আটকের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

কার্পাসডাঙ্গা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল রোববার ভোরে দামুড়হুদা উপজেলার বড়বলদিয়া নবাগেজুসহ ৭-৮ জন গরুব্যবসায়ী গরু কেনার উদ্দেশে মুন্সীপুর সীমান্তের ৯৩ নম্বর মেন পিলারের কাছ দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে। এ সময় ভারতের হাটখোলা ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফ তাদেরকে ধাওয়া করে নবাগেজুকে ধরে ফেলে। অন্যরা পালিয়ে যায়। রোববার সকালে তাদের ফেরত চেয়ে বিজিবি-বিএসএফ’র কাছে চিঠি দেয়। পরে বেলা ১১টায় মুন্সীপুর সীমান্তের ৯৩ নম্বর মেন পিলারের কাছে দু দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও নবাগেজুকে ফেরত দেয়নি বিএসএফ।

অপরদিকে, বেলা ১টায় বেনীপুর সীমান্তে দু দেশের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। চুয়াডাঙ্গাস্থ-৬ ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর আনোয়ার জাহিদ তাদের আটকের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে জীবননগর উপজেলার নতুনপাড়া সীমান্তের কাছ থেকে দেড় কোটি টাকা মূল্যের ৩ কেজি ওজনের ৩০টি স্বর্ণের বারসহ ফারুক হোসেন নামে এক বাংলাদেশিকে আটক করেছিলো ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। এ নিয়ে গত দু দিনের ব্যবধানে জীবননগর সীমান্ত থেকে বিএসএফ দু বাংলাদেশিকে আটক করলো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *