জীবননগরের উথলীর বখাটে ঝন্টুকে যৌন হয়রানির অপরাধে জেল জরিমানা

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার উথলী গ্রামের এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করার অপরাধে একই গ্রামের আমতলা পাড়ার বহু অপকর্মের হোতা, চিহ্নিত মাদকব্যবসায়ী ও হত্যা মামলার আসামি বখাটে ঝন্টুকে (৩৬) এক বছরের স্বশ্রম কারাদণ্ড এবং একই সাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নূরুল হাফিজ গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ঝন্টুকে এ জেল জরিমানা করেন। ঝন্টুকে কারাণ্ডাদেশ দেয়ায় এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

আদালতসূত্রে জানা গেছে, উথলী গ্রামের আমতলা পাড়ার মৃত শফি মোল্লার ছেলে বখাটে ঝন্টু উথলী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ১৪ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। এর পর সে ওই ছাত্রীকে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে তার ওপর যৌন নির্যাতন চালায়। এক পর্যায়ে ২৩ জানুয়ারি ওই ছাত্রীর পিতা এ ব্যাপারে জীবননগর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ গতকাল বুধবার বিকেলে ঝন্টুর বাড়ি থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে এবং ঝন্টুকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করে। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক মো. নূরুল হাফিজ বখাটে ঝন্টুকে জেল জরিমানা করেন।

এলাকাবাসী জানায়, বখাটে ঝন্টু একই গ্রামের জামাত আলীর ছেলে আলমগীর হত্যা মামলার আসামি। এছাড়া ঝন্টু এ ঘটনার দেড় বছর আগে উথলী আইডিয়াল কিন্টার গার্ডেনের ৩য় শ্রেণির এক ছাত্রীকে গলায় হাসুয়া ধরে আখক্ষেতের ভেতর নিয়ে ধর্ষণের অপচেষ্টা চালায়। এ সময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে মাঠের লোকজন ছুটে আসলে ঝন্টু পালিয়ে যায় এবং বিচারের ভয়তে ঝন্টু ৬ মাস এলাকা ছেড়ে পালিয়ে ছিলো। তার আগে একই পাড়ার এক গৃহবধূ বাড়ির পার্শ্ববর্তী বিলে গোসল করে বাড়ি ফেরার সময় একা পেয়ে ঝন্টু তাকে জাপটে ধরে ধর্ষণের অপচেষ্টা চালায়। ওই সময়ও ঝন্টু পালিয়ে রক্ষা পায়।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *