চুয়াডাঙ্গা ৬ বিজিবির বিভিন্ন ক্যাম্পের মাদকবিরোধী অভিযান ॥ মাদকদ্রব্যসহ ৯ জন আটক

দর্শনা অফিস: চুয়াডাঙ্গা জেলাকে মাদকমুক্তকরণের লক্ষে অবিরাম মাদকবিরোধী অভিযান চালাচ্ছে চুয়াডাঙ্গা-৬ বর্ডার গার্ডের সদস্যরা। দফায় দফায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে বিজিবি সদস্যরা আটক করছে মাদককারবারীচক্রের সদস্যদের ও উদ্ধার করা হয়েছে মাদকদ্রব্য। চুনোপুটিরা আটক হলেও ধরাছোয়ার বাইরেই থেকে যাচ্ছে রাঘব বোয়ালেরা। মাদক কারবারীচক্রের হোতাদের চিহ্নিত করে আটকের দাবি সর্বমহলের। মাদকমুক্ত চুয়াডাঙ্গা গড়ার লক্ষে রাতভর বিজিবি সদস্যরা চালিয়েছে মাদকবিরোধী ঝটিকা অভিযান। এ অভিযানে দামুড়হুদার বিভিন্ন এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে ৯ জনকে। উদ্ধার করা হয়েছে ৫৩৯ বোতল ফেনসিডিল ও মোটরসাইকেল।
গত পরশু মঙ্গলবার রাত পৌনে ২টার দিকে দামুড়হুদার হুদাপাড়া বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার আলীমুজ্জামান গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান হুদাপাড়া মাঠে। বিজিবির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ওই মাঠ থেকে হুদাপাড়া মাঝপাড়ার দয়লার ফকিরের ছেলে রমজান আলী ওরফে উজালাকে (২২)। উজালার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২২ বোতল ফেনসিডিল। এ ঘটনায় নায়েব সুবেদার আলীমুজ্জামান বাদি হয়ে গতকাল বুধবার আটককৃত উজালার বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। রাত ২টার দিকে দর্শনা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার আশানুল হক সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান দর্শনা-জয়নগর স্থলবন্দর সড়কের কানকাটা ব্রিজ নামক স্থানে। ওই ব্রিজ থেকে আটক করা হয় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আকন্দবাড়িয়ার রবিউল ইসলামের ছেলে টিপু সুলতানকে (৩০)। বিজিবির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে টিপু সুলতানের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ৫০ বোতল ফেনসিডিল। হাবিলদার আশানুল হক বাদি হয়ে গতকাল বুধবার টিপু সুলতানের বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। রাত ৩টার দিকে দর্শনা নিমতলা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার ফজলুল হক সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান ঈশ্বরচন্দ্রপুর বিএসপি মাঠে। ওই মাঠ থেকে আটক করা হয় দর্শনা পৌর এলাকার জয়নগরের আব্দুল করিমের ছেলে হেলাল উদ্দিনকে (২৫)। বিজিবির পক্ষ থেকে বলেছে, হেলালের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৪০ বোতল ফেনসিডিল। হাবিলদার ফজলুল হক বাদি হয়ে গতকাল বুধবার দামুড়হুদা থানায় হেলালের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। রাত ৪টার দিকে একই ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার মোখলেছুর রহমান সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান জয়নগর মাঠে। ওই মাঠ থেকে আটক করা হয় দর্শনা পৌর এলাকার জয়নগরের দিলু মিয়ার ছেলে মাহমুদ হোসেন গফাকে (২৪)। গফার কাছ থেকে ৩৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে বলে বিজিবির পক্ষ থেকে জানিয়েছে। নায়েব সুবেদার মোখলেছুর রহমান বাদি হয়ে গতকাল বুধবার গফার বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নিমতলা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার ফয়জুল হক সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে জয়নগর বিএসপি মাঠে মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করতে পারলেও কোনো মাদককারবারীকে আটক করতে পারেননি। রাত ১১টার দিকে নিমতলা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার একরামুল হক সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে জয়নগর বিএসপি মাঠ থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ৬০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছেন। এ অভিযানে কোনো মাদককারবারীকে আটক করতে পারেনি বিজিবি। মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে একই সময় দামুড়হুদার মুন্সিপুর বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার দিলবর রহমান সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান, মুন্সিপুর মাঝপাড়ায়। এ সময় আটক করা হয় কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের মুন্সিপুর গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে আতিয়ার রহমান (৪০) ও একই গ্রামের আয়ুব আলীর ছেলে ঝন্টুকে (৪৫)। বিজিবি সদস্যরা আটককৃতদের কাছ থেকে ৭০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারের তথ্য দিয়েছে। হাবিলদার দিলবর রহমান বাদি হয়ে গতকাল বুধবার আটককৃত ঝন্টু ও আতিয়ারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। রাত সাড়ে ৩ টার দিকে দামুড়হুদার জগন্নাথপুর বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার আব্দুল বারেক শেখ সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান হুদাপাড়া মাঠে। ওই মাঠ থেকে আটক করা হয় হুদাপাড়া গ্রামের আব্দুল রহমানের ছেলে আব্দুর রশিদকে (৪৫)। বিজিবির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে রশিদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ২৫ বোতল ফেনসিডিল। গতকাল বুধবার নায়েব সুবেদার আব্দুল বারেক শেখ বাদি হয়ে আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। দামুড়হুদার ঠাকুরপুর বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার আব্দুস সালাম সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে ঠাকুরপুর মাঠে মাদকবিরোধী অভিযান চালান। ওই মাঠ থেকে আটক করা হয় দামুড়হুদার কুড়–লগাছি ইউনিয়নের ঠাকুরপুরের মানিক ম-লের ছেলে মহাসিন (২৪) ও পিরপুরকুল্লা গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে মাহবুবুর রহমানকে (২৮)। বিজিবি সদস্যরা আটককৃতদের কাছ থেকে ৪৭ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে বলে জানিয়েছে। গতকাল বুধবার নায়েব সুবেদার আব্দুস সালাম বাদি হয়ে মহাসিন ও মাহবুবের বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ভোর ৫টার দিকে দামুড়হুদার সুলতানপুর বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক মোমিনুল হক সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান ঝাঁঝাডাঙ্গা বাবলাতলা মাঠে। ওই মাঠ থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ১৯০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করতে পারলেও আটক করতে পারেননি কাউকে। চুয়াডাঙ্গা-৬ বর্ডার গার্ডের অতিরিক্ত পরিচালক লুৎফুল কবির বলেছেন, চুয়াডাঙ্গাকে মাদকমুক্তকরণের লক্ষে বিজিবির মাদকবিরোধী ঝটিকা অভিযান অব্যাহত থাকবে। মাদককারবার চক্রের সদস্যদের চিহ্নিত করে আটক করা হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *