চুয়াডাঙ্গা ১৮ দলীয় জোটের বিক্ষোভ সমাবেশ : ঝিনাইদহে পুলিশি বাধা

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন ১৮ দলীয় নেত্রী আপসহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গুলশান বাসা থেকে বের হতে বাধা দিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা, নীলনকশার নির্বাচনের তফশিল বাতিল, আটক নেতা-কর্মীদের মুক্তি, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার চুয়াডাঙ্গা ও ঝিনাইদহে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বিএনপি। এ সময় ঝিনাইদহে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলটি পুলিশি বাধার মুখে পড়ে।

গতকাল বেলা সাড়ে ১১টায় জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে। সমাবেশে জেলা বিএনপির যুগ্মসম্পাদক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলার সভাপতিত্বে এবং জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক অ্যাড. আ.স.ম আব্দুর রউফের উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন অ্যাড. শামীম রেজা ডালিম, শহিদুল ইসলাম রতন, মজিবুল হক মালিক মজু, অ্যাড. মইনুল হোসেন, আসাদুজ্জামান আসাদ, মোকাররম হোসেন, আশরাফ বিশ্বাস মিল্টু, অ্যাড. আনছার আলী, অ্যাড. এখলাছুর রহমান কাজল, অ্যাড. এরশাদ, মনিরুজ্জামান মনি, মো. ফজলুর রহমান, অধ্যাপক আতিয়ার রহামান, এমএ তালহা, মঞ্জুরুল জাহিদ, রাজিব খান, সুজন মালিক, আতিয়ার রহমান, লিটন, শফিকুল ইসলাম পিটু, মামুন রেজা সবুজ, গোলাম কিবরিয়া তিস্তা, স্বাধীন অধিকারী, মোস্তাক হোসেন, ফারুক আহমেদ, আরিফুজ্জামান পিন্টু, আব্দুস সাত্তার, শাহনেওয়াজ কালু, জাভেদ ইকবাল মিজান, টোটন খান, আইনুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রহসনের তফশিল বাতিল, দেশব্যাপি গণগ্রেফতার, মার্চ ফর ডেমোক্রেসি কর্মসূচিতে বাধা প্রদানের প্রতিবাদে ও অনির্দিষ্টকালের অবরোধের সমর্থনে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা ও পৌর ১৮ দলীয় জোটের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল এবং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি সকাল ১১টার দিকে কোর্টমোড় থেকে শুরু করে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় কোর্ট মোড়ে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা পৌর ১৮ দলীয় জোটের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম মনি। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির সহসভাপতি সদর উপজেলা ১৮ দলীয় জোটের আহ্বায়ক অ্যাড. এমএম শাহাজাহান মুকুল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি আব্দুল হালিম হিরু, যুগ্মসম্পাদক মাহামুদুল হক পল্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক রউফুন নাহার রীনা, জেলা জামায়াত ইসলামীর শুরা সদস্য অ্যাড. মসলেম উদ্দীন, অ্যাড. আসাদুজ্জামান, পৌর বিএনপির সহসভাপতি আওরঙ্গজেব বেল্টু, পৌর জামায়াত ইসলামীর আমির মফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মাসুদ পারভেজ রাসেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক হাজি আব্দুল মান্নান, জেলা ছাত্রদলের যুগ্মআহ্বায়ক শাজাহান খান, সদর উপজেলা বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান, আলুকদিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ইবাদত হোসেন, খাদিমপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সেরেগুল ইসলাম, পৌর বিএনপির প্রচার সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দিনু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্মআহ্বায়ক একরামুল হক, পৌর যুবদলের আহ্বায়ক হাজি রবিউল হক মল্লিক, সদর উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মাসুদুল হক মাসুদ, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্মআহ্বায়ক হাফিজুর রহমান মুক্ত, পৌর যুবদলের যুগ্মআহ্বায়ক তানভীর আহম্মেদ, সদর উপজেলা যুবদলের যুগ্মআহ্বায়ক মিলন মেম্বার, পৌর ছাত্রদলের সভাপতি ইমরান মহলদার রিন্টু, সাধারণ সম্পাদক মো. শরিফ, জেলা যুবদল সদস্য মোবা, আতিয়ার, মঞ্জু প্রমুখ।

ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে একটি মিছিল বের করে জেলা বিএনপি। মিছিলটি দলীয় কার্যালয় কেপিবসু সড়ক থেকে পোস্ট অফিস মোড়ে পৌঁছুলে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় দলীয় নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ করতে থাকে। পুলিশি বাধার সম্মুখিন হয়ে গীতাঞ্জলি সড়কের রাস্তার সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.