চুয়াডাঙ্গা হাসপাতাল সড়ক ও দক্ষিণহাসপাতাল মোড়ে ছিনতাই মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের পর একজনকে আটক করেছে পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের হাসপাতাল সড়কসহ দক্ষিণহাসপাতালপাড়ার জোসার মোড়ে মাঝে-মাঝেই ছিনতাইকারীরা তাণ্ডব চালাচ্ছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যার পর একটি মোটরসাইকেল ছিনতাইসহ এক কলেজছাত্রের মোবাইলফোন ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে।

পুলিশ বলেছে, মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়ার আড়ালে টাকা-পয়সা দেনা-পাওনার বিষয়টি থাকতে পারে বলে কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। তবে তদন্ত চলছে। কুনিয়া চাঁদপুরের জালাল উদ্দীন নামের একজনকে আটক করে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তবে কলেজছাত্রের মোবাইলফোন ছিনিয়ে নেয়ার সাথে এ ঘটনার যোগসূত্র আছে কি-না তা স্পষ্ট নয়। নেপথ্য খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জানা গেছে, দামুড়হুদার সদাবরী গ্রামে রবিউল ইসলামের ছেলে হারুন (২৪) চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের হিসাব বিজ্ঞানে অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্র। থাকেন দক্ষিণ হাসপাতালপাড়ায়। সেখান থেকে গতরাত সাড়ে ৮টার দিকে সিনেমা হলপাড়ার উদ্দেশে রওনা হন তিনি। জোসার মোড়ের নিকট তিনজন মাফলার দিয়ে মুখ বাঁধা ব্যক্তি ধারালো অস্ত্র গলায় ধরে পকেটে থাকা মোবাইলফোনটি ছিনিয়ে নেয়। অপরদিকে এক ব্যক্তি মোটরসাইকেলচালক জোসার মোড় অতিক্রমের সময় তার গতিরোধ করে। মোটরসাইকেলটি ছিনিয়ে নেয়। খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার এসআই মনির সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছান। সেখান থেকে কুনিয়া চাঁদপুরের মৃত আলাউদ্দীনের ছেলে জালাল উদ্দীনকে আটক করেন। থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সম্প্রতি মাঝে মাঝেই হাসপাতাল সড়কসহ পার্শ্ববর্তী রাস্তায় ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। কিছুদিন আগে একজন চিকিৎসক রিকশাযোগে বাড়ি ফিরছিলেন। হাসপাতাল সড়কে কয়েকজন ছিনতাইকারী ধারালো অস্ত্র বুকে ধরে ছিনিয়ে নেয় কিছু টাকা। এছাড়া পেছন থেকে হঠাত হামলা চালিয়ে মোবাইলফোন ছিনিয়ে নিয়ে দ্রুত সটকে পড়ার ঘটনাও ঘটেছে বেশ কয়েক রাতে। একজন পথচারীকে কুপিয়ে ল্যাপটপও ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনা ঘটেছে মাস খানেক আগে। এলাকার সাধারণ মানুষ বেশ কয়েকজন সন্দেহভাজনের নাম থানায় দিলেও পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেনি বা নেয়নি বলেই অভিযোগ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *