চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চুরির সময় হাতেনাতে ধরা পড়া কিশোরকে নির্যাতন করার বিষয়ে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডের রোগীর শয্যা থেকে মোবাইলফোন চুরি করে পালানোর সময় হাতেনাতে ধরা পড়া কিশোরকে আটকে দিনভর নির্যাতনের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। হাসপাতালের মেডিসিন কনসালটেন্ট ডা. পরিতোষ কুমার ঘোষকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটিকে আগামী তিন দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন পেশের কথা বলা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন এ তদন্ত কমিটি গঠন করে দেন।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে দীর্ঘদিন ধরেই রোগী ও রোগীর লোকজনের মূল্যবান মালামাল চুরি হয়ে আসছিলো। রোগীর সাথে গায়ে পড়েখাতির জমিয়ে গলায় থাকা সোনার গয়না নিয়ে চম্পটের ঘটনাও ঘটেছে সম্প্রতি। এরই একপর্যায়ে গত ৯ জুলাই মোবাইলেফোন চুরি করে পালানোর সময় ধরাপড়ে এক কিশোর। সে ঝিনাইদহ আরাপপুরের বাসিন্দা। নাম শুভ। দিনভর আটকে নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। পত্রিকায় প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়। কিশোর শুভকে পরদিন পুলিশ আদালতে সোপর্দ করে। আদালতের আদেশে তাকে যশোরের কিশোর সংশোধনাগারে নেয়া হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *