চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের ফিমেল ওয়ার্ডে দুর্ভোগের অন্ত নেই

বাথরুমের পানি দেয়াল রসে ফ্লোর সয়লাব

 

স্টাফ রিপোর্টার: কয়েকদিন ধরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে বাথরুমের পানি দেয়াল গলিয়ে ফিমেল সার্জারি ওয়ার্ড সয়লাব হয়ে যাচ্ছে। রোগী ও রোগীর লোকজনকে পোয়াতে হচ্ছে দুর্ভোগ। দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের অভাবে রোগী ও রোগীর লোকজনের ক্ষোভ বেড়েছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের শিশু বিভাগে ধারণ ক্ষমতার ৫ গুণ বেশি রোগীর চাপ। ফিমেল সার্জারি ওয়ার্ডেও ধারণ ক্ষমতার তিনগুণ রোগী ভর্তি। ফলে ভর্তি রোগীর সিংহভাগই শয্যা না পেয়ে ফ্লোরে। আর সেই ফ্লোর বাথরুমের পানিতে সয়লাব। ৪/৫ দিন ধরে বাথরুমের পানি দেয়াল রসে ফ্লোরে ঢুকে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। রোগী ও রোগীর লোকজন এ তথ্য জানিয়ে বলেছে, সেবিকাসহ আবাসিক মেডিকেল অফিসারকে জানিয়েও প্রতিকার মিলছে না।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল ভবনের মাঝে মাঝেই সংস্কার কাজ করানো হয়। নামকাওয়াস্তে সংস্কার কাজ করানোর কারণে সমস্যা থেকেই যায়। বিশেষ করে বাথরুমগুলোর পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা অপ্রতুল। অল্পতেই পানি জমে যায়। জমে থাকা পানি অনেক সময় গড়িয়ে পেছনের বারান্দা সয়লাব হয়। এবার সয়লাব হচ্ছে ওয়ার্ড। তবে সে পানি সরাসরি ওয়ার্ডে প্রবেশ করছে না। দেয়ালের কিছু অংশ রসে ফিমেল ওয়ার্ডের মেঝেতে প্রবেশ করে রোগী ও রোগীর লোকজনকে ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে ফেলেছে।

ফিমেল ওয়ার্ডে ১৫টি শয্যা। গতকাল রোগী ছিলো প্রায় অর্ধশত। গতকালই ভর্তি হয়েছে ১৫ জন রোগী। শয্যা নেই। ওয়ার্ডের মেঝেতে থাকবে তাও হচ্ছে না দেয়াল রসে মেঝে ভেজার কারণে। এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেছেন, বিষয়টি জানার পর গণপূর্ত বিভাগের সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীকে জানানো হয়েছে। একাধিকবার তাগিদ দিয়েও কাজ হচ্ছে না। দায়িত্বটা যেহেতু গণপূর্ত বিভাগের, তারা মেরামত না করলে আমার আর কী করার আছে বলুন?

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *