চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে দালালের খপ্পরে নাজেহাল এক রোগী

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের রোগীদেরকে বাইরে পরীক্ষা নিরীক্ষা করাতে বাধ্য করছে দালালরা। রোগীরা তাদের কাছে অসহায় হয়ে পড়ছে। জোরজুলুম করে পয়সাকড়িও আদায় করছে দালালরা। ফলে বিভিন্ন টেস্টের নামে পয়সাকড়ি খুইয়ে ওষুধ না কিনেই বাড়ি ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন রোগীরা। কোনো কোনো ক্ষেত্রে বাড়ি ফেরার গাড়িভাড়ার টাকাও হাতিয়ে নিচ্ছে দালালরা। এরকমই এক ঘটনা ঘটেছে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল রোডের সেন্ট্রাল মেডিকেল সেন্টারে।

অভিযোগকারী দামুড়হুদা চিৎলা হাসপাতালপাড়ার আবেদা বেগম জানান, তিনি তার মা নিরু বেগমকে গত সোমবার দুপুরে অসুস্থতাজনিত কারণে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। ওইদিন রাতে ডা. আবুল হোসেন ব্যবস্থাপত্রে কয়েকটি টেস্ট লেখেন। সকালে হাসপাতাল থেকে টেস্টগুলো করার জন্য সিদ্ধান্ত নেন আবেদা বেগম। কিন্তু গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে হাসপাতালের লোক বলে নিজেকে পরিচয় দিয়ে ইকবাল নামের এক যুবক উপযাচক হয়ে রোগীর শরীর থেকে প্রয়োজনীয় রক্ত নিয়ে সেন্ট্রাল মেডিকেল সেন্টারে পরীক্ষা নিরীক্ষাগুলো করান এবং এক হাজার ২৫০ টাকার একটি বিল ধরিয়ে দেয় আবেদার হাতে। এত টাকার বিল দেখে তার চক্ষুচড়কগাছ। এত টাকা দিতে পারবে না জানালে সদর হাসপাতাল গেটের সামনে অভিযুক্ত দালাল ইকবালের সাথে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এ সময় আশপাশ এলাকার লোকজন জড়ো হয়। শেষমেশ পুরো টাকাই আদায় করে ছাড়ে ইকবাল। আবেদা জানান, একরকম জোর করেই টাকা নেয় ইকবাল। ফলে ওষুধ কেনার টাকা ফুরিয়ে যায়। অবশেষে ধার করে টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরি। আবেদা বেগম অভিযুক্ত দালালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *