চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর সড়কের আলুকদিয়ার অদূরে দুর্ঘটনা : নিহত ১

স্বামীর সদ্য কেনা আলমসাধুতে প্রাণ গেলো স্ত্রীর

স্টাফ রিপোর্টার: স্বামীর সদ্য কেনা আলমসাধুযোগে পিতার বাড়ির নিমন্ত্রণ রক্ষা  করতে রাস্তায় বেরিয়ে লাশ হলেন মধ্যবয়সী চামেলী খাতুন। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর সড়কের আলুকদিয়া কানাপুকুরের নিকট আলমসাধু উল্টে আহত হন তিনিসহ ৩ জন। হাসপাতালে ভর্তির আধাঘণ্টার মাথায় চামেলি খাতুন মারা যান। আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার জুড়ানপুর ইউনিয়নের রামনগর হঠাতপাড়ার শামীম সর্দ্দার দিন দশেক আগে শ্যালোইঞ্জিনচালিত আলমসাধু কেনেন। ভাড়া মেরে সংসারে সচ্ছলতা ফেরানোর সংগ্রাম শুরু করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি তার স্ত্রী চামেলী খাতুন (৪০), ছেলে তরিকুল, পুত্রবধূ শান্তনা, মেয়ে হাসি (১০) ও শিশু ভাতিজা তুহিনকে নিয়ে সদ্য কেনা আলমসাধুযোগে চুয়াডাঙ্গা জাফরপুর স্টেডিয়ামপাড়াস্থ শ্বশুরবাড়ি তথা চামেলীর পিতার বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন। পিতা ওসমান মণ্ডলের বাড়িতে দাওয়াত খাওয়ার উদ্দেশেই রওনা হয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, ভালাইপুর মোড় পেরিয়ে আলুকদিয়া কানাপুকুরের নিকট বিপরীতমুখি একটি বাসকে সাইড দিতে গেলে চালক শামীম সর্দ্দার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের ধারে উল্টে পড়েন। আলমসাধুর নিচে চাপা পড়ে মাথা ও বুকে গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন চালকের স্ত্রী চামেলী খাতুন। আলমসাধুতে থাকা অন্য আরোহীরাও আহত হন। এদেরকে উদ্ধার করে নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। আধাঘণ্টার মাথায় মারা যান চামেলী খাতুন। অপর আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি ফিরিয়ে নেয়া হয়।

পরিবারের সদস্যরা বলেছেন, চামেলীর এক ভাই ৯ দিন আগে পুত্র সন্তানের পিতা হন। পুত্র সন্তানের বয়স ৯ দিন উপলক্ষে বাড়িতে খানাপিনার আয়োজন করা হয়। আয়োজনে অংশ নিতেই চামেলী তার স্বামীর আলমসাধুযোগে জাফরপুর স্টেডিয়ামপাড়ার উদ্দেশে রওনা হয়ে প্রাণ হারান। গতকালই মৃতদেহ তার স্বামীর গ্রামের গ্রাম্য কবরস্থানে দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *