চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুরসহ সারাদেশে স্কুল কলেজে জঙ্গিবাদ বিরোধীসভা

 : ঢাকার সমাবেশে শিক্ষামন্ত্রী

সকল শ্রেণি পেশার মানুষ ঐক্যবদ্ধ হলে অচিরেই দেশ থেকে জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সম্ভব হবে

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: জঙ্গিবাদবিরোধীসভা আয়োজন করেছে দেশের সব স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও বিশ্ববিদ্যালয়। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী সচেতনতা সৃষ্টি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের নিয়মিত উপস্থিতি নিশ্চিতে শিক্ষার্থীদের অঙ্গীকার করানো হয় এসব সভা থেকে। সভায় বক্তারা বলেন, যারা এসব কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন এবং যারা এসব কাজে জড়িত তারা দেশ ও জাতির শত্রু। তারা দেশদ্রোহী। জঙ্গি কর্মাকাণ্ডে যুক্ত হলে তার পরিণতি কী হতে পারে এবং জঙ্গিদের বর্তমান দুরবস্থার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়া হয় শিক্ষার্থীদের। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সকল শ্রেণি পেশার মানুষ ঐক্যবদ্ধ হলে অচিরেই দেশ থেকে জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সম্ভব হবে। শিক্ষামন্ত্রী শনিবার ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের উদ্যোগে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে আমাদের করণীয় শীর্ষক এক আলোচনা সভায় এই আহ্বান জানান।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজে শিক্ষক মণ্ডলী, কর্মচারী, ছাত্রছাত্রী, ছাত্র নেতৃবৃন্দ, অভিভাবক, ইমাম, সাংবাদিক ও সুধী মণ্ডলীর উপস্থিতিতে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ প্রফেসর কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মুখ্য আলোচক ছিলেন উপাধ্যক্ষ আজিজুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক সফিকুল ইসলাম, ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার রোকনুজ্জামান, পেশ ইমাম আক্তারুজ্জামান, ছাত্র নেতা তামিম হাসান তারেকসহ অন্যরা। মুখ্য আলোচক আজিজুর রহমান জঙ্গিবাদ দমনে কলেজ কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন কর্মকাণ্ড গুরুত্বসহকারে তুলে ধরেন এবং অভিভাবকদেরকে সন্তানের প্রতি পালনীয় কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দেন। অধ্যক্ষ তার সভাপতির ভাষণে কোমলমতি শিক্ষাথীরা যাতে জঙ্গিবাদমূলক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত না হতে পারে তার জন্য শিক্ষক, অভিভাবক, ছাত্রনেতাদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানটির আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্বপালন করেন পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রিজাউল হক। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফ।

চুয়াডাঙ্গা সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজে অধ্যক্ষ নওরোজ মোহাম্মদ সাঈদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন। বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ ড. জাহাঙ্গীর আলম, ড. আব্দুর রশিদ, প্রফেসর শহীদুল ইসলাম, সুলতানা জান্নাতুল ফেরদৌস, মাওলানা হাফিজুর রহমান, অভিভাবক আব্দুল লতিফ শাহ, সাংবাদিক শাহ আলম সনি এবং ছাত্রী সুস্মিতা আক্তার প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালে যেমন ধর্মকে পুঁজি করে শান্তিপ্রিয় মানুষকে বিভ্রান্ত করতে পারেনি, তেমনি দেশবাসী একসাথে থাকলে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের ঠাঁই হবে না বাংলাদেশে। ‘জঙ্গি নয়, সন্ত্রাস নয়, শঙ্কামুক্ত দেশ চাই’

চুয়াডাঙ্গা পৌর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শাহজাহান আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট রাজনৈতিক কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মুন্সি আলমগীর হান্নান। বিশেষ অতিথি ছিলেন পি.পি অ্যাডভোকেট শামশুজ্জোহা। বক্তব্য রাখেন সহকারী অধ্যাপক (অব.) অধ্যাপক লুৎফর রহমান,  প্রভাষক আজিজুল হক ও একাদশ শ্রেণির ছাত্র সাদেকীন আহমেদ। প্রধান অতিথি মুন্সী আলমগীর হান্নান বলেন, বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকারের অঙ্গীকার দেশ থেকে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ উৎখাত। কোনো ষড়যন্ত্রই সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাধাগ্রস্থ করতে পারবে না।

ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে পৃথক শিফটে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে ৯টায় প্রধান শিক্ষক মনি মোহন বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মসজিদের ইমাম মাও. আব্দুর রাজ্জাক। সহকারি শিক্ষক জাহিদ হোসেন বিশ্বাসের সঞ্চালনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সহকারি শিক্ষক হাফিজুর রহমান, অনিমেষ কুমার, অশোক কুমার অধিকারী, জাকির হোসেন, মোমিনুল ইসলাম খানসহ ইমাম ও অভিভাবকবৃন্দ। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক মনি মোহন বিশ্বাস। বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, ইসলাম কখনও জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সমর্থন করেনা। সমাজের এক শ্রেণির বিপথগামী মানুষ মেধাবী শিক্ষার্থীদের প্ররোচনার মাধ্যমে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করাচ্ছে। দেশের শান্তি নষ্ট করতে তারা নানা নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড করছে। অভিভাবকদের সাবধান থাকতে হবে। সন্তানদের চলা ফেরার গতি লক্ষ্য রাখতে হবে। এছাড়া অভিভাবকদের তাদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করতে হবে।

বেলা সাড়ে ১১টায় বিদ্যালয়ে পৃথক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধান শিক্ষক মনি মোহন বিশ্বাস। প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনজুমান আরা। বিশেষ অতিথি ছিলেন মাউশির বিভাগীয় সহকারি পরিচালক নিভা রাণী পাঠক, সহকারী পরিচালক ইমরান আলী, চুয়াডাঙ্গা জেলা শিক্ষা অফিসার মিজানুর রহমান ও ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মসজিদের ইমাম মাও. আব্দুর রাজ্জাক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী শিক্ষক জাহিদ হোসেন বিশ্বাস। পরে বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র নিহত মাহফুজ আলম সজীবের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া পরিচালনা করেন সহকারি শিক্ষক তসলিম উদ্দিন। এদিকে ‘রুখবো সন্ত্রাস গড়ব দেশ, সুখী, সমৃদ্ধ অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্য বিষয়কে অন্তরে লালন করে চুয়াডাঙ্গা টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আজিজুল হক। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনজুমান আরা ও অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ একেএম শামসুদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন চীফ ইন্সট্রাক্টর ও বিভাগীয় প্রধান রওশন আলী। সভায় জঙ্গিবাদ ও ইসলামের মধ্যে বিপরীত সম্পর্কসহ দমনে করণীয় বিষয়সমূহ আলোচনা করেন অতিথিবৃন্দ।

চুয়াডাঙ্গা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক এসএম আসগর আলীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনজুমান আরা। বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মতিন, শিক্ষক মহসিন আলী, হারুন অর রশীদ, তুষার শুভ্র রায়, অভিভাবক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, সুলেয়মান হক, আব্দুর রশীদ ও ছাত্রী সুমাইয়া নূর বর্ষা।

প্রধান অতিথি বলেন, মহান স্বাধীনতাযুদ্ধের মতো জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদকে রুখে দাঁড়াতে হবে। যার যার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে হবে। শিক্ষকদের অনুগত হতে হবে, সম্মান করতে হবে এবং শ্রদ্ধা করতে হবে। সকলে মিলে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দূর করতে হবে।

ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস। বিদ্যালয়ের সভাপতি অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক রেবেকা সুলতানা। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা ইউনিটের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন, এসএমসি সদস্য অ্যাডভোকেট মুনসুর উদ্দিন মোল্লা প্রমুখ। জেলার অন্যান্য কলেজ ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় সমুহে অভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়।

চুয়াডাঙ্গা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ক্যাম্পাসে অধ্যক্ষ প্রফেসর সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মনিরুজ্জামান বাবুল। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মনজু প্রধান অতিথি উপস্থিত অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে দেশের প্রবৃদ্ধির কর্ণধার শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাবাহিকতার জন্য গণতন্ত্রমনা আনুষ্ঠিকতা নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা কৃষিবিদ রেজাউল করিম। টেকনিক্যল ট্রেনিং সেন্টারের অধ্যক্ষ আবুল হাসেম আইডিইবির জেলা সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী রফিকুল হক ও যুগ্মসম্পাদক প্রকৌশলী রোকনুজ্জামান। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন গণিত শিক্ষক রেজওয়ানুর রহমান মিলন।

চুয়াডাঙ্গা একাডেমির অনুষ্ঠান প্রধান শিক্ষক সুকেশ কুমার বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা করেন সহকারী প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুন, সহকারী শিক্ষক আবু শাহমাহ ও আবু কুহাক।

আলমডাঙ্গার ডা. আফছার উদ্দীন কলেজের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ মাহাবুল ইসলাম সেলিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন অভিভাবক সদস্য মশররফ হোসেন।

চুয়াডাঙ্গা ফাজিল মাদরাসায় সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ খালেদ সাইফুল্লাহ। বক্তব্য রাখেন আবুল হাশেম, আতিয়ার রহমান, রুহুল আমিন, মোশারফ হোসেন, হাফেজ আব্দুস সালাম, ও এবাদত হোসেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মাদরাসার শারীরিক শিক্ষার শিক্ষক রকিবুল ইসলাম।

চুয়াডাঙ্গা আদর্শ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার কেএম মামুনউজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, আব্দুল মতিন, অ্যাড. ডালিম হোসেন। সভাপতিত্ব করেন প্রধান শিক্ষক বিলকিছ জাহান।

চুয়াডাঙ্গার এমএ বারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একেএম আলী আকতারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক প্রধান শিক্ষক সুলতান মাহমুদ জোয়ার্দ্দার। বিশেষ অতিথি ছিলেন অভিভাবক আছাল উদ্দীন মালিকসহ অন্যান্য অভিভাবক ও ছাত্রছাত্রীবৃন্দ।

জেবুন্নেসা স্কুল অব এডুকেশন কিন্ডারগার্টেনে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী সভা হয়েছে। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক অধ্যাপক আব্দুর রহমান। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান সাবেক অধ্যক্ষ সিদ্দিকুর রহমান।

ডিঙ্গেদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, সোহরাওয়াদ্দী স্মরনী বিদ্যাপীঠে এসএমসির সদস্য শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন শঙ্করচন্দ্র ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক উম্মে সালমার উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক সাইনুল হক বিশ্বাস, সহকারী প্রধান শিক্ষক ফারজানা বেগম প্রমুখ। ডিঙ্গেদহ বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক শরিফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন শঙ্করচন্দ্র ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান।

বদরগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বদরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের পরিচালনা কমিটির সভাপতি মুন্সী আলমগীর হান্নানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ শরিফুল ইসলাম। বদরগঞ্জ বাকীবিল্লাহ কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ আব্দুল জলিল হাওলাদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মাদরাসার সভাপতি অ্যাড. আ.ম আনোয়ার উদ্দিন বিশ্বাস। আলিয়ারপুর আজিজ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আব্দুল মোতালেবর  সভাপিতত্বে  প্রধান অতিথি ছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. হাজি শাখাওয়া হোসেন  টাইগার। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম।

আলুকদিয়া প্রতিনিধি জানিয়েছেন, পাঁচকমলাপুর আলিয়াট নগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি শফিউদ্দিনের সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি খাদিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মণ্ডল। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধান শিক্ষক আব্দুল ওহাব, সাবেক প্রধান শিক্ষক আশাদুল হক প্রমুখ। বটিয়াপাড়া-শিয়ালমারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৱ্যালি বের করা হয়। প্রধান শিক্ষক শাহজাহানের সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জামশেদুর রহমান জোয়ার্দ্দার।

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, নীলমণিগঞ্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সভাপতিত্ব করেন প্রধান শিক্ষক আহম্মেদ সোহেল। প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয়ের সভাপতি মোমিনপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার। মুন্সিগঞ্জ নিগার সিদ্দিক ডিগ্রি কলেজ মতবিনিময়সভার আয়োজন করে। সভাপতি ছিলেন অধ্যক্ষ আবু নাসির। প্রধান অতিথি ছিলেন জেহালা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্মআহ্বায়ক হেলাল উদ্দিন। সৃজনী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠে প্রধান শিক্ষক আহাদ আলী মোল্লার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা হাসানুজ্জামান হান্নান। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউপি মেম্বার ওহিদ আলী মোল্লা, যুবলীগ নেতা কালাম হোসেন, শিক্ষক আতিকুর রহমান শাহীন, রাজিয়া সুলতানা, মফিজ উদ্দীন, গোলাম মোস্তফা, শেফালী রানী সরকার, সখের বানু, মঞ্জুশ্রী অধিকারী, বিচিত্র কুমার বিশ্বাস, নূর জাহান ইসলাম, রেখা খাতুন, মুঞ্জিরা খাতুন প্রমুখ। সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, সরোজগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে পরিচালনা কমিটি ও চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কুতুবপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলী আহাম্মদ হাসানুজ্জামান মানিক। তেতুল শেখ কলেজে আলেচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অংশ নেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা হাজি আব্দুল্লা শেখ, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম কিবরিয়া, প্রভাষক ও উপজেলা জঙ্গি প্রতিরোধ কমিটির সহসভাপতি জহুর রায়হান প্রমুখ। ছাদেমান নেছা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের সভাপতি পদ্মবিলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাস। প্রধান অতিথি ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা হাজি আব্দুল্লা শেখ, প্রধান শিক্ষক আবু সালেহ প্রমুখ।

আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, আলমডাঙ্গা মহিলা ডিগ্রি কলেজে প্রতিষ্ঠাতা সাবেক পৌর মেয়র মীর মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খান, প্রভাষক আ.স.ম সালাউদ্দিন, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ। প্রাইম পলিটেকনিকের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইদ্রিস খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু। আলমডাঙ্গা ব্রাইট মডেল স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালনক জাকারিয়া হিরোর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজাদ জাহান। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জিয়াউল হক। আলমডাঙ্গা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিচালনা পরিষদের সদস্য আওরঙ্গজেব মোল্লা টিপু। সিদ্দিকীয়া আলিম দ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মাদ্রাসার সভাপতি ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুসা। আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সভাপতি হেলাল উদ্দিন। আলমডাঙ্গার হারদী এমএস জোহা কলেজ, মীর সামসুল ইসলাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, কৃষি কলেজ, নার্গিস ইসলাম মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্র- ছাত্রীরা মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করে। আসমানখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আলোচনা সভায় গাংনী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্মআহ্বায়ক রকিবুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সার্কেল এস পি সফি উল্লাহ। এরশাদপুর একাডেমি, পাঁচলিয়া জামাল উদ্দীন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বেলগাছি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বাদেমাজু বাদলস্মৃতি একাডেমি, কুমারী ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, এম সবেদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, খাসকররা মাধ্যমিক  বিদ্যালয়, খাসকররা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, খাসকররা কলেজ, খেজুরতলা নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জেসিবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, তিওরবিলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, হারদী মীর সামসুদ্দীন আহমেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, হাটবোয়ালিয়া স্কুল এন্ড কলেজ, হাটবোয়ালিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, পাইকপাড়া জনকল্যাণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুরূপ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে

জামজামি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গার জামজামি ইউনিয়নের স্কুল সমূহে গতকাল শনিবার জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী আলোচনা সভা ও রালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলমডাঙ্গার ঘোষবিলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় আয়োজিত জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নূরুল ইসলাম। সিনিয়র শিক্ষক শামীম হাসানের উপস্থাপনায় আলোচনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, প্রবীণ শিক্ষক কফিল উদ্দিন, মহাম্মদ আলী, খন্দকার গোলাম আবেদ, উসমান গনি টুটুল, শাহনাজ পারভীন, হোসনে আরা বেগম, শিক্ষার্থী উম্মে নাইমা খন্দকার প্রমুখ।

আপরদিকে ইবির নৃসিংহপুর হাজি ওসমান গণি দাখিল মাদরাসায় জঙ্গবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন মাদরাসা সুপার মাওলানা ওয়াজেদ আলী। প্রধান অতিথি ছিলেন ওয়ার্ড আলীগের সভাপতি হারুন মালিতা। শিক্ষক হামিদুল ইসলামের উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলীগ নেতা আমজাদ হোসেন, প্রবীণ শিক্ষক মশিউর রহমান, সাবেক মেম্বার রফি উদ্দিন মল্লিক, মাওলানা আব্দুস সাত্তার, জলিল মেম্বার, ইব্রাহিম আলী, রুহুল আমীন, মানোয়ার হোসেন প্রমুখ। পরে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিশাল মিছিল বিদ্যালয় চত্বর প্রদক্ষিণ করে। জামজামি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের উদ্যোগে ৱ্যালি বের করা হয়। এ বর্নাঢ্য রালির নেতৃত্বে দেন অধ্যক্ষ মহিবুল ইসলাম ও গণিত শিক্ষক জিন্নাত আলী। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী ৱ্যালিতে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

ভালাইপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আসমানখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রকিবুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছুফি উল্লাহ। অতিথি ছিলেন প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম, সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন দিপু প্রমুখ। আলুকদিয়া রমেলা খাতুন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক শরিফা খাতুনের সবাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান ইসলাম উদ্দিন। গোকুলখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বিল্লাল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার দিনেশ চন্দ্র পাল। দলিয়ারপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হাজি সাহাবুদ্দিন।

দামুড়হুদা প্রতিনিধি জনিয়েছেন, দামুড়হুদার আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজ এবং বাংলাদেশ উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পরিচালিত এইচএসসি ও ডিগ্রি স্টাডি সেন্টারের উদ্যোগে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ কামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল খালেক, বাউবির সহকারী পরিচালক খায়রুল হাসান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বিকাশ কুমার সাহা প্রমুখ। ডিএস দাখিল মাদরাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সেলিম উদ্দীন বগার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান মাও. আজিজুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম, মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত সুপার জয়নাল আবেদীন প্রমুখ। এছাড়া দামুড়হুদা পাইলট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, দামুড়হুদা পাইলট মডেল হাইস্কুল, জয়রামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বিষ্ণুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একই সময়ে অভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

অপরদিকে নতিপোতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জুলফিকার আলী ভুট্টোর সভাপতিত্বে সভায় অতিথি ছিলেন নতিপোতা ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হক, বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোমিনুল হক, আ.লীগ নেতা মহসিন আলী প্রমুখ।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দর্শনা সরকারি কলেজ, ডিএস ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসা, দক্ষিণচাঁদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কেরুজ উচ্চ বিদ্যালয়, দর্শনা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, কামারপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সভা অনুষ্ঠিত হয়। দর্শনা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আ. খালেকের সভাপতিত্বে আলোচনা করেন, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান, কবি ও সাহিত্যিক আবু সুফিয়ান। দর্শনা ডিএস ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি গোলাম ফারুক আরিফের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মনজু। দক্ষিণচাঁদুপর মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি হাজি আকমত আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা করেন প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামসহ গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। কামারপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি জাকির হোসেন চৌধুরী সোনার সভাপতিত্বে আলোচনা করেন প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান। দর্শনা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একেএম হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের প্রসাশক মাহমুজুর রহমান মনজু। দর্শনা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক এ কে এম হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের প্রসাশক মাহমুজুর রহমান মনজু, উপস্থিত ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম। মেমনগর বিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক বদর উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, জীবননগর পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন একটি মহল দেশের এ উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ করতে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। তিনি বলেন, এ ষড়যন্ত্র সফল হবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ থেকে সকল জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের শেকড় উপড়ে ফেলা হবে। বালিকা বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, ওসি লিয়াকত হোসেন, রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান তাহাজ্জত হোসেন, সোহরাব হোসেন খান প্রমুখ। জীবননগর ডিগ্রি কলেজে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আলী আখতারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুল হাফিজ, আদর্শ মহিলা কলেজে অধ্যক্ষ মো. আলাউদ্দিনের সভাপতিত্বে, উথলী মহাবিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ আকরাম হোসেনের সভাপতিত্বে, আন্দুলবাড়িয়া কলেজে অধ্যক্ষ আব্বাছ উদ্দিনের সভাপতিত্বে, জীবননগর পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মুন্সী আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে, শাপলকালি আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক বাকীবিল্লাহর সভাপতিত্বে, জীবননগর উপজেলা আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ মাও. আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে, মিনাজপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল বাশারের সভাপতিত্বে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম মোর্তুজ প্রধান অতিথি হিসেবে, গয়েশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হারুন-অর-রশীদের সভাপতিত্বে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম পচা প্রধান অতিথি হিসেবে, হাসাদাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমানের সভাপতিত্বে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি বিশ্বাস প্রধান অতিথি হিসেবে, হাসাদাহ মডেল ফাজিল মাদরাসায় সুপারিন্টেডেন্ট মাও. আক্তারুজ্জামানের সভাপতিত্বে, মনোহরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে সহ উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়।

চুয়াডাঙ্গা সদরের হিজলগাড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন স্বপনের সভাপতিত্বে  উপস্থিত ছিলেন পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল্লা আল মামুন।

আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি জানিয়েছেন, জীবননগরের আন্দুলবাড়িয়া কলেজ, আন্দুলবাড়িয়া বহুমুখি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ও কাশিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। কলেজের অধ্যক্ষ আব্বাস আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান শেখ শফিকুল ইসলাম মোক্তার। আন্দুলবাড়িয়া বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল আলীমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বাজার কমিটির সভাপতি মির্জা হাকিবুর রহমান লিটন। আন্দুলবাড়িয়া বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মীর মকলেচুর রহমান টজোর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা পরির্দশক আশরাফ আলী। কাশিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম।

কার্পাসডাঙ্গা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কার্পাসডাঙ্গার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবিরোধী সচেতনা সৃষ্টি লক্ষ্যে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার কার্পাসডাঙ্গা ডিগ্রি কলেজে আলোচনা সভায় কলেজের অধ্যক্ষ হামিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন আব্দুল গফুর, কার্পাসডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক বাশারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিচালনা কমিটির সভাপতি শহিদুল হক, কার্পাসডাঙ্গা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মনিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষক মশিউর রহমান, কার্পাসডাঙ্গা বিএ ফাজিল মাদরাসায় অধ্যক্ষ মাও জুলফিক্কার আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মাদরাসা পরিচালা কমিটির সভাপতি আব্দুস ছালাম বিশ্বাস, কার্পাসডাঙ্গা হাদিকাতুল উলুম বালিকা মাদরাসার সুপার মাও. নূরুল আমিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজি আনছার আলী ও কুতুবপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিচালনা কমিটির সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান ভুট্টু।  এ সময় কলেজ, স্কুল, মাদরাসার  সকল শিক্ষক, পরিচালনা কমিটির সদস্য, অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় দিকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান শিক্ষক অজিত কুমার রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা অফিসার (মাধ্যমিক) সুভাষ চন্দ্র গোলজার, ভাষা সৈনিক ইসমাইল হোসেন, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক রবীন্দ্রনাথ সাহা ও সুশিল কুমার চক্রবর্তী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহকারি শিক্ষক সেকেন্দার আলী, শিক্ষার্থী উল্লাস, অংকন, নিশাত, শুভ কুমার ঘোষ প্রমুখ।

মেহেরপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ও বিএম কলেজের উদ্যোগে বেলা ১১টায় প্রতিষ্ঠানের হলরুমে অধ্যক্ষ মহা. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি শামীম আরা হীরা। প্রভাষক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহকারী প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ, সহকারী শিক্ষক আব্দুল ওহাব, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আবু সাঈদ, শিক্ষার্থী প্রিয়াংকা হালদার প্রমুখ। পরে প্রতিষ্ঠানের সামনে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী একটি মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

এদিকে সদর উপজেলার গোপালপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গনে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ ইমদাদুল হকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম, সহকারী শিক্ষক রোকনুজ্জামান, কামালউদ্দিন, অভিভাবক জিল্লুর রহমান, কামরুন্নাহার প্রমুখ। টেংরামারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ আমদহ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু বক্করের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক কুতুবউদ্দিন, সহকারী প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান প্রমুখ। আরআর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে বেলা ১১টায় প্রধান শিক্ষক আশরাফুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষক রাহিনুরজামান পলেনের সঞ্চালনায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী অভিভাবক সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রতিষ্ঠানের সভাপতি অ্যাড. শাজাহান আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর থানার ওসি (তদন্ত) মেহেদী হাসান। বক্তব্য রাখেন সহকারি প্রধান শিক্ষক আলমঙ্গীর কবির, ধর্মীয় শিক্ষক বদরুল ইসলাম, আভিভাবক সদস্য বিলকিস আরা, সেফালি খাতুন প্রমুখ। বিকেল ৩টায় মেহেরপুর ইন্সটিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজির উদ্যোগে প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান আল-আমিন ইসলাম বকুল। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাচিপ সভাপতি ডা. এমএ বাশার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বাচিব সেক্রেটারি ডা. তাপস কুমার সরকার, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. রোমেনা খাতুন, লেকচারার ডা. শর্মিলা রানী সাহা, প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ইকবাল হোসেন, কোর্স কো-অডিনেটর ডা. টিএম তাওয়াবুল ইসলাম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান প্রমুখ। মেহেরপুর কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি কলেজের অধ্যক্ষ ফজলুল হকের নেতৃত্বে সাড়ে ১১টার দিকে মেহেরপুর পলিটেকনিক মোড়ে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী মানববন্ধন ও সমাবেশ কর্মসূচি পালন করা হয়। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন কৃষি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রশিদ, সহযোগী অধ্যক্ষ এনামুল আযীমসহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক ও শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ।

এছাড়াও এদিন মেহেরপুর সরকারি কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজ, মেহেরপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মুক্তিযোদ্ধা আহম্মদ আলী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজম্যান্ট কলেজ, মেহেরপুর দারুল উলুম আহমদিয়া ফাজিল মাদরাসা, ফ্রেন্ডস ফাউন্ডেশন মডেল একাডেমীসহ সদর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী কর্মসূচি পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ, প্রতিষ্ঠান প্রধানসহ শিক্ষকবৃন্দ, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

বিভিন্ন অনুষ্ঠানের বক্তারা বলেন- দেশের দুটি বড় জঙ্গি হামলার ঘটনায় নিহত ও জড়িতদের বেশিরভাগই ছাত্র। সকলের অগোচরে দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যত এসব ছাত্ররা বিপথে চলে যাচ্ছে। এর জন্য পরিবার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে নজরদারি থাকা দরকার। যাতে আর কোন ছাত্র যেন বিপথগামী না হয়। স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসাগুলোতে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রকৃত ইসলামের আলোকে আলোকিত করার তাগিদ দেন বক্তারা।

বারাদ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মেহেরপুর মোমিনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী এবং শিক্ষ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়মিত উপস্থিতি নিশ্চিত করন বিষয়ের সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে অভিভাবক ও সুধি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বারাদী আলু বীজ হিমাগারে গতকাল শনিবার সকালে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মীর মাহাবুবুর রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন মেহেরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মঈনুল ইসলাম ও জেলা শিক্ষা অফিসার সুভাষ চন্দ্র গোলদার। ইপস্থিত ছিলেন মোমিনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুস সামাদ বাবলু বিশ্বাসসহ আরও অনেকে।

মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলায় বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও মাদরাসাগুলোতে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে অভিবাবক ও সূধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে মুজিবনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার গোলাম ফারুক এ সমাবেশের উদ্বোধন করেন। মুজিবনগর উপজেলার দারিয়াপুর গাউছিয়া দাখিল মাদরাসা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্বে করেন মাদরাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মনিরুজ্জামান টিটু। প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুল হাসান চাঁদু। মোনাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্বে করেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কামারুল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান। গোপালনগর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্বে করেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলহাজ আস্কার আলী। দারিয়াপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্বে করেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জাহিদ হাসান রাজিব। প্রধান অতিথি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল বারী বকুল। এছাড়া একই সময় উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গাংনী সরকারি ডিগ্রি কলেজের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন। সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ লিটন মোল্লা। শপথবাক্য পাঠ করান বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক রফিকুর রশীদ রিজভী। মহিলা ডিগ্রি কলেজেও প্রধান অতিথি ছিলেন মকবুল হোসেন এমপি। সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ খোরশেদ আলী।

এদিকে গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজ প্রাঙ্গণে সমাবেশ প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মোশাররফ হোসেন। গাংনী আল মদিনা দাখিল মাদরাসার সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ রোকনুজ্জামান। গাংনী বিএম কলেজের (বাঁশবাড়ীয়া) ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকবৃন্দ প্রধান সড়কে মানব বন্ধন করেন। সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফিদাহ হাসান। এছাড়াও ধানখোলা বিএম, ধানখোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আড়পাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, এস.আর.বি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, পৌর, রাইপুর, বাঁশবাড়ীয়া, জোড়পুকুরিয়া ও আমতৈল মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জঙ্গিবাদ বিরোধী মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আমঝুপি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, অমঝুপি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আশরাফ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর সদর থানা অওয়ামী লীগের সভাপতি আমঝুপি ইউপি চেয়ারম্যান বোরহানউদ্দি আহম্মেদ। ইসলাম নগর হোসাইনিয়া দাখিল মাদরাসায় সভাপতিত্বে করেন মাদরাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রহুল আমিন। প্রধান অতিথি ছিলেন আ.লীগ নেতা রুহুল আমিন। এছাড়াও আমঝুপি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আলিম মাদরাসায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি প্রতিনিধি জানিয়েছন, ঝিনাইদহ বিজ্ঞান ও কারিগরি ইন্সটিটিউটের সুপারিটেনডেন্ট আব্দুল্লাহ-আল মামুনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মহিউদ্দীন মহি। ঝিনাইদহ কলেজের অধ্যক্ষ বাদশা আলমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বাবুল আক্তার লাল্টু। ঝিনাইদহ কেসি কলেজের আহ্বয়ক এসএম আসাফুদ্দৌলার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. বিএম রেজাউল করিম।

ডাকবাংলা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ডাকবাংলার  উত্তর নারায়ণপুর মাধ্যামিক বিদ্যালয়, সাধুহাটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, উত্তর নারায়ণ পুর দাখিল মাদরাসায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ডাকবাংলা আব্দুর রউফ ডিগ্রি কলেজে সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন ভার প্রাপ্ত অধ্যক্ষ জিন্নাত জেসমিন। প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুর রউফ মণ্ডল। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাধুহাটি কৃষি খামারের উপরিচালক হাফিজুর ইসলাম প্রমুখ।

হরিণাকুণ্ডু প্রতিনিধি জানিয়েছেন, হরিণাকুণ্ডুর সালেহা বেগম মহিলা ডিগ্রি কলেজে পরিচালনা পর্ষদের সদস্য বদিউল আলমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ইন্তাজুল হক। মান্দিয়া আইডিয়াল কলেজে পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আফজাল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন। জোড়াদহ কলেজে অধ্যক্ষ শরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। ঘোড়াগাছা লাল মোহাম্মদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহাবায়ক এসএমসির সভাপতি আলহাজ মশিউর রহমান জোয়ার্দ্দার। হরিণাকুণ্ডু প্রিয়নাথ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবু গোপাল চন্দ্র বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক শহিদুল ইসলাম, সালাহ উদ্দীন, মাহমুদুল হাসান প্রমুখ। লালন একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এসএমসির সভাপতি নাজমূল হুদা পলাশ চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক জালাল উদ্দিন, হাজি মকবুল হোসেন প্রমুখ। মান্দারতলা জোড়াপুকুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মাহফুজুর রহমানসহ অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ। এছাড়া সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ, আন্দুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জোড়াদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, এসএমসির সভাপতি, সদস্য, অভিভাবক, ইমামসহ বিভিন্ন পেশার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

কোটচাঁদপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কোটচাঁদপুর মডেল পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন স্কুল কমিটির সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা কাজী আলমগীর। প্রধান অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান নাজমা খাতুন। এছাড়া উপজেলা সদরে কোটচাঁদপুর কামিল মাদরাসা, কোটচাঁদপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, সরকারি কলেজসহ কোটচাঁদপুর বাহাজ্জেল হোসনে দাখিল মাদরাসায় কমিটি সভাপতি মীর আলমের সভাপতিত্বে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মহেশপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মহেশপুরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। মহেশপুর সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ওয়াহেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন ঝিনাইদহ-৩ আসনের সংসদ সদস্য নবী নেওয়াজ। বিশেষ অথিতি ছিলেন মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। বক্তব্য রাখেন, আ.লীগ নেতা সাজ্জাদুল ইসলাম সাজ্জাদ, অমল কুন্ডু, মীর সুলতানুজ্জামান লিটন, ডাঃ আতাউর রহমান প্রমুখ। পরে এমপি মহেশপুর মহিলা কলেজের আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। ওই সভায় সভাপত্বি করেন অত্র কলেজের অধ্যক্ষ মোমিনুল ইসলাম। মহেশপুর পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বালিকা বিদ্যালয়, আলহেরা দাখিল মাদরাসায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী আলোচনা সভায় এমপি নবী নেওয়াজ প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। একই সময়ে মহেশপুরের ফতেপুর গাজীরননেছা বালিকা বিদ্যালয়ে, ফতেপুর শামছুদ্দিন সরদার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে, খালিশপুর মাধ্যমিক বিদ্যলয়ে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইবি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের আহ্বানে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) জঙ্গিবিরোধী ৱ্যালি, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। অধ্যপক ড. রাশিদ আসকারীর নেতৃত্বে জঙ্গিবিরোধী ৱ্যালি বের হয়। ৱ্যালিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগ, সকল আবাসিক হল অংশ নেয়। ৱ্যালিতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য ড. শাহিনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যপক ড. সেলিম তোহা, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আব্দুল লতিফ, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক অমিত কুমার দাস প্রমুখ।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *