চুয়াডাঙ্গা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পৃথক অভিযান : ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ আটক ২

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পৃথক অভিযানে ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ দু মাদকব্যবসায়ীকে আটক  করেছেন। আটককৃতরা হলেন, দর্শনা পাঠানপাড়া রেল কলোনীর রবিউল ইসলামের ছেলে মাদকব্যবসায়ী আব্দুল খালেক (২৫) ও দর্শনার  আকন্দবাড়িয়ার রবিউল ইসলামের মেয়ে মাদকব্যবসায়ী জুলিয়া খাতুন (৩০)। আটককৃতরা দীর্ঘদিন যাবত এলাকায় মাদকের ব্যবসা করে আসছিলো। গতকাল মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের অভিযানে তাদেরকে গাজা ও ফেনসিডিলসহ আটক করা হয়। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সোমবার গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে সকাল ৭টার দিকে দর্শনার পাঠানপাড়া রেল কলোনীর আব্দুল খালেকের বাড়িতে অভিযান চালান। এ সময় তার বাড়ি থেকে আব্দুল খালেককে আটক করে। আব্দুল খালেকের স্বীকারোক্তিতে তার ঘর থেকে ১শ পুড়িয়া গাঁজা উদ্ধার করা হয়। পরে তারা একই এলাকার স্বপন ওরফে জাহাঙ্গীরের বাড়িতে অভিযান চালালে তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে স্বপন বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। পড়ে তার ঘর তল্লাশি করে ১শ ৫০ পুড়িয়া গাঁজা উদ্ধার করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সদস্যরা। এদিকে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আকন্দবাড়িয়া ফার্মপাড়ার রবিউল ইসলামের বাড়িতে অভিযান চালালে তার স্ত্রী রশিদা খাতুন পালিয়ে গেলেও মেয়ে জুলিয়া খাতুনকে (৩০) আটক করা হয়। জুলিয়া খাতুনের স্বীকারোক্তিতে তার ঘরের ভেতর থেকে ২১ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। অপরদিকে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে জেলা সদরের আকন্দবাড়িয়া ফার্মপাড়ার মাদকব্যবসায়ী আকলিমা খাতুন ও রহিমা খাতুনের বাড়িতে অভিযান চালালে তারা পালিয়ে যায়। তাদের ঘর তল্লশি করে ৬০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সদস্যরা। অভিযান পরিচালনা করেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পরিদর্শক বিশ্বাস মফিজুল ইসলাম, উপপরিচালক আবুল কালাম আজাদ ও সহকারী উপপরিদর্শক আকবর হোসেনসহ আরও অনেকে। গতকাল মামলাসহ আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *