চুয়াডাঙ্গা বিসিক শিল্পনগরী একনেকে চূড়ান্ত অনুমোদন : শিল্প উদ্যোক্তাদের উল্লাস

হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দারের বিশেষ উদ্যোগ : ঘোড়ামারা ব্রিজের অদূরে ৩২ কোটি টাকা ব্যয়ে গড়ে উঠছে শিল্পনগরী

 

স্টাফ রিপোর্টার: সকল বাধা পেরিয়ে চুয়াডাঙ্গা ঘোড়ামারা ব্রিজের অদূরে গড়ে উঠতে যাচ্ছে বিসিক শিল্পনগরী। গতপরশু মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় চুয়াডাঙ্গাবাসীর দীর্ঘদিনের প্রত্যাশিত এ প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদন পায়। গতকাল চুয়াডাঙ্গা জেলা উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির সভায় জেলা প্রশাসক দেলোয়ার হোসাইন এ সুসংবাদ সকলকে জানিয়ে বলেন, চুয়াডাঙ্গায় দীর্ঘদিন ধরে দায়িত্ব পালনে এটাই আমার কাছে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ ও আনন্দের সংবাদ। ৩২ কোটি টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়নের চূড়ান্ত অনুমোদনের খবর চুয়াডাঙ্গার শিল্প উদ্যোক্তাদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে গতকাল বুধবার আনন্দের বন্যা বয়ে যায়।

জানা গেছে, দেশের অধিকাংশ জেলায় দীর্ঘদিন আগেই বিসিক শিল্পনগরী গড়ে তোলা গেলেও চুয়াডাঙ্গাবাসীর স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে মাঝে মাঝেই এসেছে বাধা। সকল বাধা কাটিয়ে চুয়াডাঙ্গা বিসিক শিল্পনগীর প্রকল্পটি বাস্তবায়নে বিশেষ উদ্যোগ নেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদের হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক দেলোয়ার হোসাইনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার পাশাপাশি চুয়াডাঙ্গা চেম্বার সভাপতি ইয়াকুব হোসেন মালিকও যেনো উঠে পড়ে লাগেন।

সংশ্লিষ্টসূত্র বলেছে, প্রকল্পটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপির আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০১৩ সালের ১৩ জুন শিল্পমন্ত্রণালয়ের প্লানিং ডাইরেক্টর রমা রাণী রায়ের নেতৃত্বে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম প্রকল্পটি পরিদর্শন করে। পরিদর্শক দল চুয়াডাঙ্গাবাসীর দীর্ঘদিনের প্রত্যাশার প্রতিফলন ঘটিয়ে প্রতিবেদন দাখিল করে। ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে প্রকল্পটি এডিপিতে অন্তর্ভুক্ত হয়। হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার গত ৬ মে পুনরায় প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় বরাবর আরও একটি আবেদন করেন। কেটে যায় সকল বাধা। গতপরশু মঙ্গলবার একনেক’র বৈঠকে প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদন লাভ করে। এ খবর চুয়াডাঙ্গার শিল্প উদ্যোগতাদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে অনেকেই উল্লাস প্রকাশ করে বলেন, শিল্পনগরী প্রকল্পটির দিকে দীর্ঘদিন ধরেই তাকিয়ে ছিলাম আমরা।

এ প্রসঙ্গে চুয়াডাঙ্গার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও নিউ মার্কেট সমবায় সমিতির সভাপতি মাহফুজুর রহমান মিজাইল হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন ও চুয়াডাঙ্গা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ইয়াকুব হোসেন মালিককে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, জেলায় বিসিক শিল্পনগরী প্রতিষ্ঠা লাভ করানোর জন্য তাদের অবদান জেলাবাসী স্মরণ করবে। তিনি আরো বলেন, জেলায় জেলায় বিসিক শিল্পনগরী প্রতিষ্ঠা লাভ করায় শিল্প উদ্যোক্তারা কর্মসংস্থান বৃদ্ধিসহ রফতানিমুখি শিল্প কলকারখানা প্রতিষ্ঠা, কৃষি উন্নয়নসহ দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের অগ্রগতিতে এগিয়ে যাবেন এবং শিল্পপতিরা জাতীয় অর্থনীতিতে অনন্য ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন বলে আশা প্রকাশ করছি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *