চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদা ও দর্শনায় ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

জামায়াত-শিবিরের নৈরাজ্যের প্রতিবাদ

 
মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর, দামুড়হুদা ও দর্শনায় ছাত্রলীগ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। সমাবেশ থেকে বলা হয়, সারাদেশে জামায়াত-শিবিরের নৈরাজ্য তাণ্ডব ও চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার দর্শনায় সাধারণ মানুষ ও প্রশাসনের ওপর হামলা চালিয়ে শান্ত পরিবেশকে অশান্ত করে তুলেছে। স্বাধীনতার বিরোধী এই অপশক্তিকে প্রতিহত করতে না পারলে দেশের উন্নয়ন মুখ থুবড়ে পড়বে। জঙ্গিবাদের উত্থান হবে।
চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শুক্রবার বিক্ষোভ মিভিল ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সারাদেশে জামায়াত-শিবিরের নৈরাজ্য তাণ্ডব ও চুয়াডাঙ্গার দর্শনায় সাধারণ মানুষ ও প্রশাসনের ওপর হামলার প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে বক্তারা জামায়াত শিবির সম্পর্কে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান। এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিক্ষোভ মিছিলটি সরকারি কলেজ চত্বর থেকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শরিফ হোসেন দুদুর নেতৃত্বে বের হয়। চুয়াডাঙ্গা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহীদ হাসান চত্ত্বরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শরিফ হোসেন দুদুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আলী আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক লাভলু, যুব ক্রীড়া সম্পাদক অ্যাড. শফিউদ্দীন, অ্যাড. ফিরোজ আহমেদ, সোহরাব আহমেদ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু। বিক্ষোভ সমাবেশে অতিথিরা বক্তব্য দেন। এছাড়াও ছিলেন, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শরীফ উদ্দীন, মেহেদী, যুগ্মসম্পাদক ফরিদ, রাশেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ফরিদ আহমেদ, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি জাবিদ, সাধারণ সম্পাদক সজল, সদর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক জানিফ। উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের জ্যামি, শান্তি, সজল, রাজা, সিহাব, মধু, পৌর ছাত্রলীগের হাসান, জজ, মাফি, তাপু, রুবেল, মন্টা, আলামিন, ফয়সাল, সুমন, তাওরাত, সদর থানার হালিম, রাকিব, সামাদ, ডিউক, আলমগীর, জ্যাকি, বিপ্লব, জাহাঙ্গীর, হাসিবুল, ইমরান, আলামিন, মামুন, বুলবুল, ভুলোন প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধসহ দর্শনায় যারা সাধারণ মানুষ ও পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে তাদেরকে গ্রেফতার করা জন্য প্রশাসনকে আহ্বান করেন ও আগামী নির্বাচনে আবারো জননেত্রী শেখ হাসিনকে প্রধানমন্ত্রী করার জন্য জেলার সকল ইউনিটকে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। সমাবেশটি পরিচালনা করেন জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মো. রিংকু হোসেন জোয়ার্দ্দার।
দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দেশব্যাপি জামায়াত-বিএনপির নৈরাজ্য ও দর্শনা পুজামণ্ডপে হামলাসহ আগামীকাল রোববার হরতালের প্রতিবাদে দামুড়হুদায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বাসস্ট্যান্ডে শেষ হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, সদর ইউনিয়ন আ.লীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম, যুগ্মসম্পাদক ইমতিয়াজ হোসেন, লাভলু,  আ.লীগ নেতা আফজালুর রহমান বুলু, আ. জব্বার, আয়ুব আলী, বদর উদ্দিন, জনাব আলী, মতি, মুনসুর, উপজেলা যুবলীগ নেতা শফিউল কবির ইউসুফ, আবু তালেব, হযরত আলী, আব্দুস সালাম ভুট্টু, ছোট হযরত, জাহিদুল, শরিফুল, আজিবার, হাবিব, মিঠু, শামসুল, রকিবুল, ভুট্টু, এসএম ডলার, আশরাফুল, আরিফ, ইলিয়াস, আতিয়ার, সোহেল, খালেক, ওসমান, কানন, সিরাজ, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জামিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সাজু আহম্মেদ রিংকু, সাংগঠনিক সম্পাদক সাজেদুল বিশ্বাস মিঠু, কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক শাহিন মোল্লা, ছাত্রলীগ নেতা তুষার, মিলন, প্রমুখ। বক্তরা জামায়াত- বিএনপির নৈরাজ্য ও শিবিরের ডাকা হরতাল প্রত্যাখান করে রাজপথেই জবাব দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।
দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দেশব্যাপি তথা দর্শনায় জামায়াত-শিবিরের নৈরাজ্য ও তাণ্ডবের বিরুদ্ধে দর্শনায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে আ.লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ। গতকাল শুক্রবার বিকেলে দর্শনা পৌর আ.লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের যৌথ উদ্যোগে পৌর আ.লীগের কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পৌর আ.লীগের কার্যালয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। দর্শনা পৌর আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য দেন দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, যুগ্মসম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, আ.লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা রুস্তম আলী, গোলাম ফারুক আরিফ, বিল্লাল হোসেন, মোজাহারুল ইসলাম, মোমিনুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা আব্দুল হান্নান ছোট, আজিজুর রহমান বাবু, জয়নাল আবেদীন নফর, শেখ আসলাম আলী তোতা, ইকবাল হোসেন, হাবিবুর রহমান মিলন, একে আজাদ কিরণ, মামুন শাহ, আব্দুস সালাম ভুট্টো, ছাত্রলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম ববি, নাহিদ পারভেজ, লোমান প্রমুখ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *