চুয়াডাঙ্গা ঝিনাইদহ ও মেহেরপুর পুলিশের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত : হাসাদহে গ্রেফতার ৭

 

দামুড়হুদার সাবেক চেয়ারম্যান যুবদল নেতা তনু গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার: একদিকে জোরালো অবরোধ কর্মসূচি পালন, অপরদিকে পুলিশের গ্রেফতার অভিযান। গতকাল গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল দামুড়হুদা উপজেলা যুবদল নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল হাসান তনুকে গ্রেফতার করেছে। জীবননগরের হাসাদহ বাজার থেকে জামায়াতে ইসলামীর ৭ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঝিনাইদহ সদর থেকে একজন, হরিণাকুণ্ডু থেকে দুজন, শৈলকুপা থেকে তিনজন, মহেশপুর থেকে একজন ও কালীগঞ্জ থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে।

রফিকুল হাসান তনুকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ করে অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানিয়েছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদল আহ্বায়ক ওয়াহেদুজ্জামান বুলা। পূর্বে গ্রেফতারকৃত দামুড়হুদা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক লিয়াকত আলী শাহ জামিন লাভ করেছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। গত মঙ্গলবার থেকে টানা অবরোধে বিএনপি-জামায়াতের নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট নেতাকর্মীরা চোরগোপ্তা হামলার পাশাপাশি তারা বেশ কিছু গাড়ি ভাঙচুর করে। জেলা বিএনপির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদুজ্জামান বুলা ও পৌর বিএনপির সভাপতি মজিবুল হক মজুসহ অনেকের বাড়িতেই পুলিশ তল্লাশি করে। এরা গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপন করলেও রাজপথে মাঝে মাঝেই দেখা মিলছে।

দামুড়হুদা অফিস জানিয়েছে, দামুড়হুদা উপজেলা ১৮ দলের সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক উপজেলা বিএনপির সভাপতি লিয়াকত আলী শাহ জামিনে মুক্ত হয়েছেন। অপরদিকে যুগ্মআহ্বায়ক দামুড়হুদা উপজেলা যুবদলের সেক্রেটারি সংগ্রাম কমিটির যুগ্মআহ্বায়ক রফিকুল হাসান তনুকে ডিবি পুলিশ আটক করেছে। পূর্বে গ্রেফতারকৃত উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক লিয়াকত আলী শাহ অবশ্য জামিন লাভ করেছেন।

জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার চুয়াডাঙ্গা দায়রা জজ আদালতে আটক লিয়াকত আলী শাহ ও ছাত্রদলের সাবেক যুগ্মসাধারণ সম্পাদক তাজ আলমের জামিন আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। অপরদিকে রফিকুল হাসান তনুকে দুপুরে চুয়াডাঙ্গা পুলিশপার্কের রেস্টুরেন্টের মধ্য থেকে চুয়াডাঙ্গা ডিবি পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। দীর্ঘদিন থেকে সরকার পতন আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী লিয়াকত আলী শাহ ও রফিকুল হাসান তনুসহ ১৮ দলের নেতাকর্মী ভূমিকা রাখে। গত মঙ্গলবার সকাল ৯টায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে দামুড়হুদা ডিএস দাখিল মাদরাসার সামনে মহাসড়কে পিকিটিং করার সময় পুলিশ লিয়াকত আলী শাহ ও শাহ আলম তাজকে আটক করে। পরদিন দুজনকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করে। ১০ম নির্বাচনী তফশিল ঘোষণার পরপরই ১৮ দলের নেতাকর্মীদের অনেকের বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালালে গ্রেফতার এড়াতে অনেক নেতা-কর্মী আত্মগোপনে রয়েছে।

দামুড়হুদা উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান দামুড়হুদা থানা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল হাসান তনুকে পুলিশ আটক করায় চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের আহ্বায়ক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি যুবদল নেতা রফিকুল হাসান তনুর অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন।

জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার হাসাদাহ বাজারে অভিযান চালিয়ে জামায়াতে ইসলামীর ৭ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে জীবননগর থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা এ সময় ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার খালিশপুর বাজারে অবরোধে পিকেটিং করে বাড়ি ফিরছিলো।

থানাসূত্রে জানা যায়, ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার শ্যামকুড় ইউনিয়ন থেকে জামায়াতে ইসলামীর নেতাকর্মীরা অবরোধে পিকেটিং করতে খালিশপুর বাজারে যায়। সেখানে সড়ক অবরোধ করে পিকেটিং এবং ভাঙচুর করে বাড়ি ফিরছিলো। এমন খবর পেয়ে থানা পুলিশ হাসাদাহ বাজারে অভিযান চালিয়ে ৭ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলো- মহেশপুর উপজেলার তালসার গ্রামের হাবিবুর রহমান (৫১), রমজান মিয়া (১৪), আবুল কালাম (১৭), রফিকুল ইসলাম (৩৫), ভবনগরের মতিয়ার রহমান (৪০), জুলফিকার আলী (৪৫), মজিবুর রহমান (২৭) ও তালসার। গ্রেফতারকৃতদেরকে আজ শুক্রবার আদালতে সোপর্দ করা হতে পারে বলে সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা গেছে।

ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ঝিনাইদহের বিভিন্ন উপজেলায় পিকেটিংকালে ছাত্রদল ও শিবিরের আট কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। ছাত্রদলকর্মীদের মধ্যে ঝিনাইদহ সদর থেকে একজন, হরিণাকুণ্ডু থেকে দুজন, শৈলকুপা থেকে তিন জন, মহেশপুর থেকে একজন ও কালীগঞ্জ থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে।

হরিণাকুণ্ডু থানার ওসি মহিবুল ইসলাম জানান, সকাল ১০টার দিকে অবরোধের সমর্থনে পিকেটিং করার সময় শহর থেকে লালু ও মহুল নামে দুজনকে আটক করা হয়। শৈলকুপা থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, দুপুর ২টার দিকে ভাটইবাজার থেকে ছাত্রদলকর্মী টিপু সুলতান, মাসুদ ও সোহাগ নামে তিনজনকে আটক করা হয়। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান জানান, সদর উপজেলার রামন্দ্রপুর গ্রাম ইসরাফিল নামে  একজন ও কালীগঞ্জ উপজেলার বড়ঘিঘাটি গ্রাম থেকে আলআমিন ও বালিয়াঙ্গা গ্রাম থেকে শহিদুল ইসলাম নামে দুজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া মহেশপুর উপজেলার মালাধরপুর গ্রাম থেকে আবু সুফিয়ান নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। বিকেলে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *