চুয়াডাঙ্গা ঝিনাইদহসহ সারা দেশে গণ অনশন : ঢাকায় খালেদা জিয়া

সারাদেশ আজ মৃত্যু উপত্যকায় পরিণত হয়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা ঝিনাইদহসহ সারা দেশে গণ অনশন কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি। ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবে গণ অনশন কর্মসূচি পালনকালে বিএনপি চেয়ারপার্সন ১৯ দলীয় জোট নেতা বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, সারা দেশে আজ মৃত্য উপত্যাকায় পরিণত হয়েছে।

DSC05795

তিনি অব্যাহত গুম-খুনের সাথে সরকারের লোকজন জড়িত বলেঅভিযোগ করেবলেছেন, নারায়ণগঞ্জ, নীলফামারী, সাতক্ষীরা, বগুড়াসহ এমন কোনো জেলা নেই যেখানে খুনের ঘটনা ঘটেনি। এসবগুম-খুনের সাথে সরকারের লোকজন জড়িত। তাই তাদের বিচার হচ্ছে না। গতকাল রোববার বিকেলে  জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে ঢাকা মহানগর বিএনপি আয়োজিত  গণঅনশনে  প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। বক্তব্য শেষে বিএনপি নেতাদেরজুস খাইয়ে অনশন ভাঙান খালেদা জিয়া। বিকেল সাড়ে ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবেগণঅনশনে সংহতি প্রকাশ করেন তিনি। খালেদা জিয়া বলেন, চারদিকে এখন রক্ত আররক্ত। দেশের মানুষের চোখে শুধু পানি আর পানি। আমরা আর চোখের পানি দেখতে চাইনা। চোখের পানি মুছার জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করতে হবে। একটিবিশেষ জেলার পুলিশ বেপরোয়া হয়ে গেছে অভিযোগ করে বিরোধী জোট নেতা বলেন, সরকার র‌্যাব-পুলিশকে দলীয় কাজে ব্যবহার করে ইমেজ নষ্ট করে ফেলেছে। আর একটিবিশেষ জেলার পুলিশ বেপরোয়া হয়ে গেছে। আওয়ামী লীগ সরকার চিরদিন ক্ষমতায়  থাকবে না। তখন কোথায় যাবেন। সব কিছুর জবাবদিহি করতে হবে।

তিনি বলেন, সাবেক সেনাশাসক এরশাদকে জিয়া-মঞ্জুরের খুনি আখ্যায়িতকরে তার বিচার দাবি করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও বিরোধী জোট নেত্রী খালেদাজিয়া। বলেন, এরশাদ খুনি। তিনি প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও জেনারেল মঞ্জুরেরখুনি। তার বিচার করতে হবে। এ সরকার খুনিদের নিয়ে ক্ষমতায় বসে আছে। খুনিদেরপাশে নিয়ে চলা যায় না।

সকাল ৯টায় জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে অনশন শুরু করেন বিএনপি নেতারা। ঢাকামহানগর বিএনপি আয়োজিত এ গণঅনশনে দিনভর বিভিন্ন সংগঠন ও ১৯ দলের শরিক নেতারাসংহতি প্রকাশ করেন। এদিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি শহীদ হাসান চত্ত্বর সংলগ্ন মঞ্চে সকাল ১০টায় গণ অনশন শুরু করে। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মুহা. অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, ১ম যুগ্ম আহ্বায়ক মাহমুদ হাসান খান বাবু, যুগ্ম আহ্বায়ক ওয়াহেদুজ্জামান বুলা, যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শ্রমিক নেতা এম জেনারেল ইসলাম, লে.কর্নেল (অব.) সৈয়দ কামরুজ্জামান, অ্যাড. আব্দুল ওহাব মল্লিক, খাজা আব্দুল হাসনাত, কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মনি, রফিকুল হাসান তনু প্রমুখ নেতৃবৃন্দ গণ অনশনে অংশ নেন। বক্তব্য দিতে গিয়ে ১ম যুগ্ম আহ্বায়ক কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা মাহমুদ হাসান খান বাবু বলেন, সারা দেশে বর্তমান সরকার নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছে। বাকশালি কায়দায় দেশ চালিয়ে দেশের সাধারণ মানুষকে ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে ঠেলে দিয়েছে। সরকার বর্তমান আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর কোন কোনটিকে রক্ষবাহিনীতে রূপান্তর করে খুন গুম চালিয়ে যাচ্ছে। বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলন বেগবান করে বর্তমান নৈরাজ্যসৃষ্টিকারী সরকারের পতন ঘটাতে হবে। পতন অনিবার্য। পতন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। দেশের সাধারণ মানুষ আমাদের সাথে রয়েছে। সকলকে সাথে নিয়ে আন্দোলনের মাধ্যমেই গুম খুন প্রতিরোধ গড়ে তোলা ছাড়া বিকল্প নেই। কেনো না, এখন আমরা আর কেউ নিরাপদ নই। শ্বাসরুদ্ধকর পরিবেশে আমরা বাঁচতে চাই না। আমরা আমাদের দেশকে নৈরাজ্যমুক্ত করবোই ইনশাল্লাহ।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, গুম, খুন বন্ধ এবং বেগম খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ দলের নেতাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ঝিনাইদহে গণঅনশন কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি। জেলা বিএনপির আয়োজনে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বরে এ গণঅনশনে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের শ শ নেতা-কর্মী অংশ নেন।ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মসিউর রহমান অনশনে নেতৃত্ব দেন। সকাল সাড়ে ৯টা থেকে শুরু হয়ে গণঅনশন কর্মসূচি চলে দুপুর ২টা পর্যন্ত। অনশন চলাকালে সমাবেশে শৈলকুপা উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সাংসদ এমএ ওহাব, হরিণাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান এমএ মজিদ, বিএনপি নেতা আবদুল মতলেব বিশ্বাস, আশরাফুল ইসলাম পিন্টু, আহসান হাবিব রনক, তহুরা বেগম, জাহিদুল ইসলাম পিন্টুসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশ এখন সন্ত্রাস ও অপহরণকারীদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। সারা দেশের মানুষ চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। সরকার সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার না করে তাদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে। এ অবস্থায় একটি দেশ চলতে পারে না।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *