চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক নির্বাচন-২০১৪

১৫টি পদে ভোট যুদ্ধে লড়ছেন ৩১ জন প্রার্থী

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের দিনে কোনো প্রার্থীই মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি। নির্বাচনে ১৫টি পদের বিপরীতে ৩১ জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে লড়ছেন। ফলে আইনজীবী সমিতির নির্বাচন জমে উঠেছে। নির্বাচনের কয়েকদিন হাতে থাকায় প্রার্থীরা চষে বেড়াচ্ছেন ভোটারদের অফিস আদালত ও বাড়িঘর। তবে, তিন জোটের দলীয় আইনজীবী নেতৃবৃন্দ নিজেদের জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা গেছে , গত ২৪ নভেম্বর ছিলো চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সাধারণ নির্বাচন-২০১৪’র মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিন। কোনো পদেই কোনো প্রার্থীই মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি। গত ১৭ নভেম্বর প্রতিদ্বন্দ্বী দুটি প্যানেলই তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। দুটি প্যানেলের বাইরে সাধারণ সম্পাদক পদে আরো একজন মনোনয়নপত্র জমা দেন। সব মিলিয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন এখন জমজমাট। আগামী ২৯ নভেম্বর শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে।

আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি পদে নুরুল ইসলাম ও সম্পাদক মহ. শামসুজ্জোহা প্যানেল এবং বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদের সভাপতি পদে মুন্সী মো. শাহাজাহান মুকুল ও সাধারণ সম্পাদক পদে সাঈদ মাহমুদ শামীম রেজা ডালিম প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এছাড়া, গণতান্ত্রিক আইনজীবী ঐক্য পরিষদের প্রার্থী জাসদ নেতা হাজি আকসিজুল ইসলাম রতন সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ভোটযুদ্ধে নেমেছেন। আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের অন্য পদের প্রার্থীরা হলেন, সহসভাপতি পদে খন্দকার নাসির উদ্দীন ও আশরাফুল ইসলাম খোকন, যুগ্মসম্পাদক পদে তালিম হোসেন ও আতিয়ার রহমান, সদস্য পদের প্রার্থীরা হলেন রবিউল হক রবি, ওয়ালিউল ইসলাম, ছরোয়ার হোসেন, আসলাম উদ্দীন (২), আমজাদ হোসেন, নাসির উদ্দীন (৩), মোখলেছুর রহমান, আনারুল হক ও সুজাউদ্দীন।

অপরদিকে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদের অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন, সহসভাপতি পদে মনসুর উদ্দীন মোল্লা ও শহিদুল হক (২), যুগ্ম সম্পাদক পদে আহসান আলী ও খন্দকার অহিদুল আলম ওরফে মানি খন্দকার। সদস্য পদের প্রার্থীরা হলেন মমতাজ খাতুন, আব্দুল্লাহ আল মামুন (এরশাদ), জামাল উদ্দীন, এসএম হুমায়ুন কবীর, মাসুদুর রহমান, হারুনুর রশীদ (বাবলু), মশিউর রহমান পারভেজ, হুমায়ুন কবীর মামুন ও মাসুদ পারভেজ রাসেল।

গণতান্ত্রিক আইনজীবী পরিষদের সভাপতি ও চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি হাজি সেলিম উদ্দিন খান জানান, বাংলার মানুষ দু নেত্রীকে আর চাচ্ছে না। সেকারণে আমরা সাধারণ সম্পাদক পদে হাজি আকসিজুল ইসলাম রতনকে প্রার্থী ঘোষণা করেছি। ভোটারদের সাড়া পেলে জয়ের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী।

জাতীতাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল ওহাব মল্লিক জানান, অন্য যেকোনো বছরের নির্বাচনের চেয়ে চলতি নির্বাচনে তারা ঐক্যবদ্ধ আছে। সাথে রয়েছে ইসলামিক ল’ ইয়ার্স কাউন্সিল। বারের সচেতন ভোটারদের সাড়া পেলে জয়ের ব্যাপারে আমরা শতভাগ আশাবাদী।

আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের আহ্বায়ক ও বারের নির্বাচনে সভাপতি পদে প্রার্থী নুরুল ইসলাম জানান, অতীতের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জয়ের রেকর্ড রয়েছে। সুতরাং সাধারণ সম্পাদক পদে তিনজন প্রার্থী থাকলেও সকল পদে জয়ের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী।

উল্লেখ্য, বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির দায়িত্ব পালন করছেন সভাপতি পদে মুন্সী মো. শাহাজাহান মুকুল ও সাধারণ সম্পাদক পদে সাঈদ মাহমুদ শামীম রেজা ডালিম।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *