চুয়াডাঙ্গা জেলাকে বাল্যবিয়ে মুক্ত করতে নিকাহ রেজিস্ট্রারদের ভূমিকাই প্রধান

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গাকে বাল্যবিয়ে মুক্ত ঘোষণায় জেলা প্রশাসন ও নিকাহ রেজিস্ট্রারদের করণীয় শীর্ষক বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা ১টার দিকে শ্রীমন্ত টাউন হলে বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতি চুয়াডাঙ্গা শাখার সভাপতি কাজি মাও. মো. রবিউল হক আনছারীর সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনজুমান আরা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক, জেলা রেজিস্ট্রার আবুল কালাম আজাদ, পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কেএম মামুন উজ্জামান, বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক আলহাজ  কাজি মাও. খলিলুর রহমান সরদার ও বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির মহাসচিব ওলামা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ কাজি মাও. ইকবাল হোসাইন।

বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাও. এবিএম মোশারফ হোসেনের সঞ্চালনায় সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাশায়েক ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মাও. আব্দুল হালিম সিরাজী, বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির খুলনা বিভাগীয় সভাপতি কাজি মাও. মো. রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাজি মাও. জাকারিয়া আকন্দ প্রমুখ। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কাজি মাও. মো. শামছুল হক।

বক্তব্যে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক বলেন, বাল্যবিয়ে সমাজ তথা দেশের একটি মারাত্মক সমস্যা। দেশে জনসংখ্যা বৃদ্ধিসহ নানাবিধ সমস্যার অন্যতম কারণ বাল্যবিয়ে। বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন খুবই তৎপর। এছাড়া বাল্যবিয়ের অন্যতম প্রধান কারণ জনপ্রতিনিধিদের সমর্থন। তাই জনপ্রতিনিধিদের বাল্যবিয়ে সমস্যা সমাধানে সর্ব প্রথম এগিয়ে আসা উচিত। চুয়াডাঙ্গা জেলাকে বাল্যবিয়ে মুক্ত করতে কাজিদের সর্বপ্রকার সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

আরও বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনজুমান আরা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক, জেলা রেজিস্ট্রার আবুল কালাম আজাদ, পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কেএম মামুন উজ্জামান, বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক কাজি মাও. খলিলুর রহমান সরদার ও বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির মহাসচিব ওলামা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজি মাও. ইকবাল হোসাইন, বাংলাদেশ মাশায়েক ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মাও. আব্দুল হালিম সিরাজী, বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির খুলনা বিভাগীয় সভাপতি কাজি মাও. মো. রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাজি মাও. জাকারিয়া আকন্দ প্রমুখ। সম্মেলন শেষে কাজিগণ চুয়াডাঙ্গাকে বাল্যবিয়ে মুক্ত জেলা করতে শপথ করেন এবং জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ বাল্যবিয়ে বন্ধে কাজিদের সর্বদা সহায়তা করবেন বলে অঙ্গীকার করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.