চুয়াডাঙ্গা জামজামি খাদিমপুর ও গাংনী বিএনপির মিছিলসহ সংক্ষিপ্ত সমাবেশ ১৮ দলীয় জোট দেশে একতরফা নির্বাচন হতে দেবে না

স্টাফ রিপোর্টার: পুনরায় তফশিল ঘোষণা করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির একাংশ বিক্ষোভ মিছিল করেছে। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী লে.কর্নেল (অব.) সৈয়দ কামরুজ্জামানের আহ্বানে তার কার্যালয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। আলমডাঙ্গার খাদিমপুরে স্থানীয় বিএনপি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। জামজামি বিএনপিও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। গাংনী ইউনিয়ন বিএনপিও বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে।

বিক্ষোভ মিছিল শেষে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তারা বর্তমান সরকারের একতরফা নির্বাচন নিয়ে তুমুল সমালোচনা করে বলেন, গণতন্ত্র হত্যা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে বাকশালী শাসন কায়েম করেছে। বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলনের মাধ্যমেই এ সরকারের পতন নিশ্চিত করতে হবে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে ছাড়া সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট দেশে একতরফা নির্বাচন হতে দেবে না।

প্রহসনের তফশিল বাতিল, বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের  হত্যা ও গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে চুয়াডাঙ্গা ১৮ দলীয় জোটের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি গতকাল রোববার সকাল ১০টার দিকে কোর্টমোড় থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় কোর্টমোড়ে শেষ হয়। সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা পৌর বিএনপি একাংশের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মনি। প্রধান অতিথি ছিলেন বালাদেশ জাতীয়তাবাদী দল কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য জেলা বিএনপি একাংশের সভাপতি মুহা. অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, হামলা, মামলা, নির্যাতন, হত্যা ও গ্রেফতার করে গণমানুষের দাবি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে আগামী ১০ম নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবিকে স্তব্ধ করা যাবে না। তিনি অবিলম্বে হত্যা, নির্যাতন ও গ্রেফতার বন্ধ করে শেখ হাসিনার পদত্যাগ দাবি করেন এবং দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার স্বার্থে এ সৈরাচারী সরকারের অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে জনসাধারণকে রাজপথে নেমে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান। তিনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী ভাইদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা এ অবৈধ সরকারের নির্দেশ না মেনে আপনাদের সাংবিধানিক দায়িত্ব জনগণের জানমাল রক্ষার স্বার্থে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য সরকারের বিরুদ্ধে জনগণের কাতারে দাঁড়ান। বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি, সদর উপজেলা বিএনপি, পৌর বিএনপি এবং অঙ্গসংগঠনসহ চুয়াডাঙ্গা ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীবৃন্দ।

এদিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, শীর্ষ নেতা বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরামের উপদেষ্টা লে. কর্নেল (অব.) সৈয়দ কামরুজ্জামান বলেছেন, যতো চেষ্টাই করুন না কেন বিএনপিকে বাদ দিয়ে বাংলার মাটিতে কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। তিনি গতকাল সন্ধ্যায় নির্বাচনী তফশিল বাতিল, প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ ও শীর্ষ নেতাদের মুক্তির দাবিতে এক প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন। চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সমাবেশে কর্নেল কামরুজ্জামান প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি বক্তব্যের সমালোচনা করে বলেন, বর্তমান মন্ত্রীসভা না কি সর্বদলীয় সরকার? বর্তমান মহাজোট সরকারের মন্ত্রীসভা উল্লেখ করে সাবেক এ সেনা কর্মকর্তা বলেন, গায়ের জোরে আর যাই হোক দেশ চালানো যায় না। ঘোষিত তফশিল বাতিল ও প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করে অবিলম্বে বিএনপির শীর্ষ নেতাদের মুক্তি দাবি করেন তিনি। চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার আলী হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সিনিয়র- সহসভাপতি এবিএম হাসান হাসু, সহপ্রচার সম্পাদক রেজাউল করিম মুকুট, যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আব্দুর জব্বার সোনা, যুবদল নেতা মফিজুর রহমান মনা, মনিরুজ্জামান লিপটন ও আলমগীর কবির। উপস্থিত ছিলেন সার্জেন্ট নজরুল ইসলাম বিডিআর, মহিলাদলের নেত্রী- নাসরিন বেগম, শ্রমিকদল নেতা সালাম, মিঠু যুবনেতা একরামুল হক ইকরা, দিলু, তানজিল, সাইদুর রহমান, আরশেদ আলী প্রমুখ।

জামজামি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গার জামজামি বাজারে গতকাল বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ইউনিয়ন বিএনপির একাংশ তথা অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস গ্রুপ কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচির আয়োজন করে। জামজামি ইউনিয়ন বিএনপির একাংশের বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃত্ব দেন ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মো. রফিউদ্দিন মেম্বার ও আলমডাঙ্গা উপজেলা বিএনপির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মো. শাহ্ আলম। সঞ্চালকের দায়িত্বে ছিলেন জামজামি ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি হুমায়ুন কবীর, হরিণাকুণ্ডু উপজেলা যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি মো. আব্দুল মোমিন, জামজামি ইউনিয়ন যুবদল আহ্বায়ক পলাশ বিশ্বাস, বিএনপি নেতা নাসির উদ্দিন, জগত আলী, যুবদল আহ্বায়ক আশানুর রহমান, ছাত্রদল সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান রানা প্রমুখ।

অপরদিকে আলমডাঙ্গার ৫ নং গাংনী ইউনিয়ন বিএনপির উদ্যোগে আসমানখালী বাজারে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান রেজুর নেতৃত্বে মিছিলে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান হাবলু, সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম রেজাসহ রাজু আহমেদ, মুনসার, খোকন, গিয়াস উদ্দীন, সোহরাব হোসেন, ওসমান মেম্বার, জাকার, ওবাইদুর, বখতিয়ার, ওহিমদ্দিন, মধু, আশকার মেম্বার, ইদ্রিস মেম্বার, খালেক মেম্বার, নজরুল মেম্বার, বেল্টু মেম্বার, হামিদুল, আমদ আলী, মজিদ, জিহাদ, রফিক, বজলু, বাবর আলী, মহাবুল, মকলেচুর, চাঁন মোহাম্মদ, সাবান, আলিম, শাহাদৎ, আমির, হাফি, ছাত্রনেতা মহাসিন, প্রিন্স, খাইরুল, সোহেল, নুহু প্রমুখ।

ভালাইপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল রোববার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আলমডাঙ্গার খাদিমপুর ইউনিয়ন বিএনপি একাংশের উদ্যোগে খাদিমপুর স্কুলমাঠে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ও এ অযোগ্য সরকারকে প্রতিহত করতে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। খাদিমপুর ইউনিয়নে বিএনপির সভাপতি সেরেগুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপি একাংশের যুগ্মসম্পাদক মাহমুদুল হক পল্টু। বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্মআহ্বায়ক হাফিজুর রহমান মুক্ত, সদর উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মাসুদুর হক মাসুদ, সদর উপজেলা যুবদলের যুগ্মআহ্বায়ক মিজানুর রহমান মিলন, যুবদলনেতা বাহারাম, খাদিমপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তপন মাহমুদ, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, ইসাহাক মাস্টার, আনছার আলী, হাফিজুর রহমান মেম্বার ও মতিয়ার রহমান। বক্তব্য রাখেন মশিউর রহমান লাল্টু, হাফিজুর রহমান, আক্তারুজ্জামান, স্বপন, আব্বাস আলী, নয়ন প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন আজিজুর রহমান আজিত।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *