চুয়াডাঙ্গা কোটকাস্টডি থেকে পালানো শাহীনকে ধরতে পারেনি পুলিশ

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার কোর্টকাস্টডি থেকে পালিয়ে যাওয়া আসামি শাহীনকে ধরতে পারেনি পুলিশ। গত মঙ্গলবার জেলহাজত থেকে আদালতে হাজির করানোর জন্য আদালতের হাজতখানায় নেয়া হলে সে পালিয়ে যায়। কর্তব্য অবহেলার দায়ে এটিএসআই ইছাহাকসহ তিন কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সাথে শুরু হয়েছে বিভাগীয় তদন্ত।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের এতিমখানাপাড়ার রেজাউল হকের বাড়িতে গত ১৬ অক্টোবর চুরি হয়। হাতেনাতে ধরা পড়ে শাহীন। সে চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের ডিঙ্গেদহ বাজারপাড়ার মৃত আক্তার আলীর ছেলে। সেই থেকে সে চুরি ও হত্যা প্রচেষ্টা মামলায় জেলহাজতে। গত ‌১ জুলাই ছিলো মামলার ধার্যদিন। এ দিনে জেলহাজত থেকে কোটহাজতে নেয়া হয়। সেখান থেকে পালিয়ে যায় সে। ঘটনার দিন বিষয়টি জানাজানি না হলেও পরদিন আর গোপন থাকেনি। পুলিশের তরফে জানানো হয়, কোট কাস্টডির বাথরুমের ভেন্টিলেটারের রড কেটে পালিয়েছে আসামি শাহীন। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মামলাও রুজু করা হয়। গতরাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হাজত পালানো শাহীনকে ধরতে পারেনি পুলিশ। তবে তাকে ধরার জন্য পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত ছিলো। অপরদিকে দায়িত্ব অবহেলার দায়ে ঘটনার দিন কোটকাস্টডির নিরপত্তা কাজে নিয়োজিত এটিএসআই ইছাহাক আলী, কনস্টেবল আজিজুল, তৌহিদুল হক ও শাহীন মিয়াকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে রাখা হয়েছে। এদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টসূত্র।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *