চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার ফুলবগাদি গ্রামে অস্ত্রধারী ডাকাতদলের হানা ডাকাতিসহ দোকানি অপহরণ : মাঠ থেকে উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার পল্লি ফুলবগাদির দোকানি মজিবুর রহমানকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করা হলেও গ্রামবাসী মাঠ থেকে তাকে উদ্ধার করেছে। গতপরশু রাত ১টার দিকে অস্ত্রের মুখে তাকে অপহরণ করে পার্শ্ববর্তী নিমতলা মাঠে হাত-মুখ বেঁধে ফেলে রাখা হয়। গ্রামবাসীর প্রতিরোধের মুখে অপহরকচক্র তাকে এভাবে ফেলে যায় বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। অপহরণকারীরা মজিবরকে অপহরণের সময় ডাকাতিও করে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার ফুলবগাদি গ্রামের মৃত আকবর আলীর ছেলে মজিবর রহমান বাড়ির সাথেই দোকান দিয়ে ব্যবসা করেন। দোকানে মাঝে মাঝে টহল পুলিশ বসে সময়ও কাটায়। গতপরশু রাত ১টার দিকে ১৫/১৬ জনের একদল ডাকাত নিজেদেরকে পুলিশ বলে পরিচয় দিয়ে মুড়ি খাওয়ার আবদার জানায়। মজিবর দরজা খুলতেই অস্ত্রধারী ডাকাতদল চোখ-মুখ বেঁধে ডাকাতি শুরু করে। ডাকাতদলের কয়েকজন মজিবুরকে মাঠের দিকে নিয়ে যায়। বাকি ডাকাত সদস্যরা ডাকাতি করতে থাকে। এক পর্যায়ে মজিবরের বিধবা ভাবী টের পেলে চিৎকার দেন। মজিবরের বাড়ির অদূরেই চলছিলো একটি মওতো খানার আয়োজন। চিৎকার শুনেই তারা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। ডাকাতদল পালিয়ে যায়। অপহৃতকে উদ্ধারে গ্রামবাসী রাতেই মাঠ তল্লাশিতে নামে। খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে নিমতলা মাঠের একটি গাছের সাথে হাত ও মুখ বাঁধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে।

গ্রামবাসী বলেছে, বেশ কিছুদিন ধরে গ্রামে পাহারা দেয়া হয়। গতপরশু রাতে পাহারা ছিলো না। সুযোগ বুঝে ডাকাতদল হানা দিয়েছে। পুলিশি টহল জোরদার করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *