চুয়াডাঙ্গায় ৯৭টি মণ্ডপে প্রতিমা স্থাপন : দুর্গাপূজা উপলক্ষে জেলা পুলিশের মতবিনিময়সভা

0
34

শারদীয় উৎসবে শুরু থেকে বিসর্জনের দিন পর্যন্ত থাকবে তিন স্তরের নিরাপত্তা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলায় হিন্দু ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে উদযাপনের লক্ষ্যে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইনে গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময়সভার আয়োজন করা হয়। শারদীয় উৎসব শুরু থেকে বিসর্জনের দিন পর্যন্ত তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছালেহ উদ্দিনের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার নওশের আলী, চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম, আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, দামুড়হুদা থানা ওসি (তদন্ত) আব্দুল মালেক, জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাকিবুল ইসলাম, সদর থানা ওসি (তদন্ত) ফারুক হোসেন প্রমুখ। সভায় পুলিশ সুপার বলেন, চুয়ডাঙ্গা জেলায় মোট ৯৭টি মণ্ডপে প্রতিমা স্থাপন ও শারদীয় দুর্গা উৎসব পালন করা হবে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ২৯টি, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৩০টি, দামুড়হুদা উপজেলায় ২০টি জীবননগর উপজেলায় ১৮টি মণ্ডপে পূজা উদযাপন করা হবে।  নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে এবারও তিন স্তরে ভাগ করা হয়েছে। জেলায় মোট ৭টি অধিক গুরুতপূর্ণ মণ্ডপে একজন অফিসারসহ ১৩ জন, গুরুতপূর্ণ মণ্ডপে ১১ জন ও সাধারণ পূজামণ্ডপে ৮ জন পুলিশ এবং আনসার সদস্যরা নিয়োজিত থাকবে। এছাড়াও পুলিশ, ডিবি পুলিশ, মোবাইল ফোর্সসহ শাদা পোশাকে ডিএসবি টহল প্রস্তুত থাকবে। তবে পুলিশের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজ নিজ পূজামণ্ডপে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নিজেদেরকেও দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে। মাইক ব্যবহারের ক্ষেত্রে আজান ও নামাজের সময় বন্ধ রাখতে হবে। পূজামণ্ডপে বিদ্যুতব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। আতশবাজি ব্যবহার করা যাবে না। প্রতিমা বিসর্জন কার্যক্রম সূর্যাস্তের পূর্বে করতে হবে। যে সকল প্রতিমা নির্ধারিত দিনে বিসর্জন হবে না সেগুলো কমিটির নিজ দায়িত্বে রেখে বিসর্জন দিতে হবে।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, আর মাত্র কয়দিন পরে শারদীয় দুর্গা উৎসব। শারদীয় দুর্গা উৎসবকে ঘিরে মেহেরপুরের হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকদের ঘরে আনন্দের বন্যা বইতে শুরু করেছে। মণ্ডপে মণ্ডপে কুমারেরা প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত। এ বছর জেলায় ৩৪টি পূজা মণ্ডপে পূজা উদযাপিত হবে। যা গত বছরের তুলনায় প্রায় এক ডজন কম। মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের তথ্য মতে এ বছর জেলার ৩টি উপজেলায় মোট ৩৪টি পূজা মণ্ডপে পূজা উদযাপিত হবে। সে লক্ষ্যে মণ্ডপে মণ্ডপে কুমারেরা প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। চলতি বছর শারদীয় দুর্গা উৎসব উদযাপনে মেহেরপুর সদর উপজেলায় ১৩টি, গাংনী উপজেলায় ১৪টি ও মুজিবনগর উপজেলায় ৭টি পূজা মণ্ডপে পূজা উদযাপিত হবে। তবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে আরো জানা গেছে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্য পরিবর্তন হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here