চুয়াডাঙ্গায় ৫ম শ্রেণির ছাত্রী রুবিনার রহস্যজনক মৃত্যু 

দক্ষিণপাড়ায় নিজ বাড়ির উঠোনের আমগাছের সাথে ঝুলন্ত লাশ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের দক্ষিণ গোরস্তানপাড়ার স্কুলছাত্রী রুবিনার রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় নিজেদের বাড়ির উঠোনের আমগাছ থেকে গলায় ওড়না বাধা ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ উদ্ধারের আগে ও পরে তার মায়ের আচরণ সন্দেহজনক বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয়রা। ঢাকার গার্মেন্টেসে চাকরি করা পিতা রবিউল ইসলাম রবি চুয়াডাঙ্গায় ফিরে বলেন, এমন কোনো কারণ নেই যে ক্লাস ফাইভে পড়া মেয়ে আত্মহত্যা করবে। পুলিশ সঠিকভাবে তদন্ত করলে নিশ্চয় মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

রুবিনা চুয়াডাঙ্গা প্রভাতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ছিলো। গতকাল সন্ধ্যায় দক্ষিণ হাসপাতালপাড়াস্থ নিজেদের বাড়ির উঠোনের আমগাছের ডালে বাধা ছিলো মৃতদেহ। প্রতিদিন দুপুরে তার মা বাড়ি ফিরলেও গতকাল ফেরেন বিলম্বে। তার আগেই এক শিশু লাশ দেখে স্থানীয়দের জানায়। মৃতদেহ গাছ থেকে নামিয়ে হাসপাতালে নেয়া হলে কতব্যরত চিকিৎসক বলেন, অনেক আগেই মারা গেছে। মৃতদেহ বাড়ি ফিরিয়ে নেয় হয়। পুলিশে খবর দেয়া নিয়ে চলে গড়িমসি। কেউ কেউ বলেন, ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের জন্য তার মা তড়িঘড়ি করতে শুরু করলে স্থানীয়দের মধ্যে সন্দেহ দানা বাধে। এক পড়শীর অনুপস্থিতি ওই সন্দেহ আরো বাড়িয়ে দেয়। রুবিনার মায়ের গতকাল আচরণও ছিলো অস্বাভাবিক। ফলে লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়া দাফন করা হবে না বলে স্থানীয়দের কয়েকজন শক্ত অবস্থান নেন। অপরদিকে খবর পেয়ে ঢাকা থেকে রওনা হন রুবিনার পিতা রবি। রুবিনার মা তার দ্বিতীয় স্ত্রী। রবিউল ইসলাম রবি চুয়াডাঙ্গায় ফিরে লাশ দেখে বলেন, ময়নাতদন্ত ছাড়া লাশ দাফনের কোনো কারণ নেই। আড়ালে আরো অনেক কিছু থাকতে পারে। পুলিশ গতরাতেই লাশ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালমর্গে নিয়েছে। আজ বুধবার ময়নতদন্ত শেষে রুবিনার মৃতদেহ দাফন কাজ সম্পন্ন করা হতে পারে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *