চুয়াডাঙ্গায় সড়কে গাছ ফেলে গণডাকাতি : মোটরসাইকেল ছিনতাই

চুয়াডাঙ্গা-আলমডাঙ্গা সড়কে ব্রিজমোড়ের অদূরে ডাকাতদলের তাণ্ডব

 

মুন্সিগঞ্জ/মোমিনপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা-আলমডাঙ্গা সড়কের পূর্বকমলাপুর ব্রিজমোড়ের অদূরে সড়কে গাছ ফেলে দীর্ঘ প্রায় ২ ঘণ্টা ধরে ডাকাতি করেছে একদল সশস্ত্র ডাকাতদল। গত বুধবার রাত সাড়ে আড়াইটা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ডাকাতদল ৫টি ট্রাকসহ কমপক্ষে ১২ জন বাইসাইকেল আরোহীর নিকট থেকে নগদ টাকা, মোবাইলফোন ডাকাতি করে। ডাকাতদল একটি মোটরসাইকেলও ছিনিয়ে নিয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা-আলমডাঙ্গা সড়কের পূর্বকমলাপুর ব্রিজমোড়ের অদূরে খুদিয়াখালী গ্রামের নিকটবর্তী গত পরশু বুধবার সড়কে গাছ ফেলে একটানা ২ ঘণ্টা ধরে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতদল সড়কের পাশের একটি রেইন-ট্রি গাছ কেটে সড়কে ফেলে রেখে গতিরোধ করে গণডাকাতি করেছে। ২০/২৫ জনের মুখ বাঁধা ডাকাতদল ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মারধর করে কমপক্ষে ৫টি ট্রাক থেকে নগদ টাকা মোবাইলফোন, মূল্যবান জিনিসপত্রসহ এক ব্যক্তির একটি মোটরসাইকেল কেড়ে নেয়। আলমডাঙ্গা উপজেলার শিয়ালমারী গ্রামের ডাকাতির কবলে পড়া মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন জানান, আলমডাঙ্গা থেকে আমি এবং জাফরপুর গ্রামের পিন্টু ভোর সাড়ে ৪টার দিকে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিলাম। পথিমধ্যে ব্রিজ মোড়ের অদূরে খুদিয়াখালী গ্রামের নিকটবর্তী একটি কাঁঠালবাগানের সামনে সড়কের ওপর গাছ ফেলে গতিরোধ করে মুখবাঁধা ডাকাতদল ধারালো অস্ত্র দিয়ে জিম্মি করে মারধর করে। পরে আমার প্যাশন-প্রো মোটরসাইকেল নগদ, ১ হাজার ১শ টাকা ও একটি মোবাইলফোন এবং পিন্টুর কাছ থেকে একটি মোবাইলফোন কেড়ে নেয় ডাকাতদল। ডাকাতির কবলে পড়া চুয়াডাঙ্গা মসজিদপাড়ার রকিব ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে জানান, আমার নিজের ট্রাকে পাকসি থেকে বালি নিয়ে চুয়াডাঙ্গা ফেরার পথে সড়কের ওপর গাছ দেখে আমার ট্রাকচালক বিল্লাল গাড়ি থামিয়ে দেন। গাড়ি থামার সাথে সাথে ডাকাতদল মারধর করে আমার কাছ থেকে নগদ ৩ হাজার টাকা, একটি মোবাইলফোন ও একটি বিদেশি টর্চলাইট ছিনিয়ে নেয়। আমাদের যখন সড়কের পাশে একটি মাঠের ভেতর নিয়ে যায় তখন সড়কের ধারে দুটি পিকআপসহ প্রায় ১২টি ট্রাক দাঁড়িয়ে ছিলো বলেও জানান রকিব।

এদিকে একটানা দু ঘণ্টার অধিক সময় ধরে গণডাকাতির সময় সড়কে কোনো টহল পুলিশ দেখা যায়নি বলে অভিযোগ করেছে এলাকাবাসী। বেশ কিছুদিন আগে ব্রিজমোড়ে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। প্রায় ৬ বছর আগে ব্রিজ মোড়ে ডাকাতির কবলে পড়েছিলো জ্যোতি বিস্কুট কোম্পানির একটি পিকআপ। ডাকাতদল পিকআপ চালককে ঘাড়ে কোপ মেরে নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। ডাকাতদলের ধারালো অস্ত্রের কোপে জখম চালক ঘটনার একদিন পরে মারা যান। এলাকাবাসীর প্রশ্ন; সড়কে একের পর এক ডাকাতির ঘটনা ঘটলেও রহস্যজনক কারণে ঘটনার সময় সড়কে পুলিশি টহল থাকে না।

স্থানীয়রা বলেছেন, ১৫ দিন আগে গভীররাতে একই স্থানে একটি অ্যাম্বুলেন্সে রোগীর লোকজনের কাছ থেকে ছিনতাই করে। এছাড়া গত বছরের শেষ দিকে ব্রিজমোড়ের গতিরোধকে একটি ট্রাকের গতিরোধ করে ১০ হাজার ও মোবাইলফোন ছিনতাই করে চালককে মাঠের মধ্যে হাত-পা বেঁধে গাছের সাথে বেঁধে রাখে। গত বছর একই স্থানের উম্বাদ জোয়ার্দ্দারের আমবাগানের নিকট সড়কের ওপর গাছ ফেলে সড়ক অবরোধ করে ট্রাক, মাইক্রোবাস ও আলমসাধু গতিরোধ করে লক্ষাধিক টাকা এবং মোবাইলফোন ছিনতাই করে একই ছিনতাইকারীচক্র।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানায়, মুন্সিগঞ্জের খুদিয়াখালী পূর্বকমলাপুর ব্রিজমোড় নামক স্থানের চুয়াডাঙ্গা-আলমডাঙ্গা সড়কের প্রায়ই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। খাদিমপুরের কান্তপুর গ্রামের ব্রিজমোড়ের দুজনসহ বেশ কয়েকজন ছিনতাই ও ডাকাতির সাথে জড়িত বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। গত কয়েক বছর আগে তারা সড়কের পাশের গাছ চুরি করলেও বর্তমানে তারা সরাসরি ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে। এরা সড়কে ছিনতাই করে কিছুদিনের জন্য গাঢাকা দিয়ে আবার এলাকায় ফিরে এসে ছিনতাই, ডাকাতি ও গাছ চুরি করে বলে সূত্র জানায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *