চুয়াডাঙ্গায় শীতের তীব্রতা : দুস্থ শীতার্তদের দুর্ভোগ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ দেশের প্রায় সিংহভাগ এলাকার ওপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে শৈত্যপ্রবাহ। চুয়াডাঙ্গা, শ্রীমঙ্গলসহ উত্তরবঙ্গে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ হলেও রাজধানীসহ অন্য এলাকার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। গতকালও চুয়াডাঙ্গায় ছিলো সারাদেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।
মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহের কারণেই চুয়াডাঙ্গাসহ পার্শ্ববর্তী এলাকায় শীতের তীব্রতা বেশি। উত্তরবঙ্গেও তীব্র শীতে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। গতকাল দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা চুয়াডাঙ্গা ও শ্রীমঙ্গলে ৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো টেকনাফে ২৬ দশমিক ৭। চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ২৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের প্রায় সকল এলাকায়ই সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে। তবে গতকাল সন্ধ্যা ৬টার পরর্বতী পূর্বাভাসে আবহওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, রংপুর, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের দু এক জায়গায় হালকা অথবা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া অন্য এলাকায় আকাশ আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া মূলত শুষ্ক থাকতে পারে। সন্দ্বীপ, কুমিল্লা, সীতাকুণ্ডু, রাঙ্গামাটি ও শ্রীমঙ্গলসহ রাজশাহী, রংপুরি, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ওপর দিয়ে প্রবাহমান শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। ৪৮ ঘণ্টায় সামান্য পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে। ৫ দিনের পূর্বাভাবে বলা হয়েছে, শেষের দিকে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে। শীতের তীব্রতায় চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুরসহ সারাদেশেই শীতের তীব্রতায় জনজীবন বিষিয়ে উঠেছে। গতরাতে চুয়াডাঙ্গা শহর ঘুরে দেখা গেছে নৈশপ্রহরী ছাড়া তেমন মানুষ নেই। কয়েকজন রিকশাচালক রিকশার মধ্যে গুটিশুটি হয়ে বসে। আর টহল পুলিশ? সড়কে টহলের মাঝে যেখানেই নৈশ প্রহরী জ্বালানো আগুন পেয়েছে সেখানেই একটু দাঁড়িয়ে আগুনের উষ্ণতা নিয়ে স্বস্তি খোঁজার চেষ্টা করেছেন। কেউ কেউ দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে বলেছেন, সকলেই যখন লেপের নিচে আয়েশ করে ঘুমিয়ে, তখন তাদের পাহারায় আমরা ঘুরছি কেমন করে তার খবর আর কে রাখে! এদিকে গতকালও বিভিন্ন স্থানে দুস্থ শীর্তাতদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।
মহেশপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল মঙ্গলবার সকালে রয়েল প্লাজার ২য় তলায় মহেশপুর সোনালী ব্যাংক শাখার অফিসকক্ষে সোনালী ব্যাংকের উদ্যোগে শীতার্ত ও দুঃস্থদের মাঝে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। মহেশপুর শাখা ব্যবস্থাপক নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, ঝিনাইদহ প্রিন্সিপাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার হাসিম উদ্দীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশাফুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ প্রিন্সিপাল অফিসের সিনিয়র অফিসার এনামুল হক, আজমপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহাজান আলীসহ মহেশপুর শাখার সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *