চুয়াডাঙ্গায় শিশুস্বর্গ পার্কে জেলা প্রশাসনের অভিযানে অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী আটক

 

অশ্লীল কার্যকলাপের সুযোগ দেয়ায় পার্ক কর্তৃপক্ষকে জরিমানা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা ফেরিঘাট রোডস্থ শিশুস্বর্গ পার্কে অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুচিত্র রঞ্জন দাস ও সিব্বির আহমেদ ওই অভিযান চালান।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, ক্লাস ফাঁকি দিয়ে শিশুস্বর্গ পার্কে আড্ডা দেয়া শিক্ষার্থীদের ধরতে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদের নেতৃত্বে অভিযান চালান ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রকাশ্যে অশ্লীল কর্মকাণ্ডে লিপ্ত প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়। পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলাকালীন সময়ে তারা আর পার্কে আসবে না অঙ্গীকারের ভিত্তিতে এ যাত্রায় রেহাই দেয়া হয়। এছাড়া প্রকাশ্য স্থানে অশ্লীল কার্যকলাপ করতে আশ্রয় দেয়ায় দণ্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৯৪ ধারায় পার্কের মালিক হেলাল হোসেন জোয়ার্দ্দারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের পার্কে প্রবেশ করতে না দেয়া এবং  সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে পার্ক পর্যবেক্ষণের নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক।

জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ মাথাভাঙ্গাকে জানান, অভিভাবকদের তাদের সন্তান কোথায় যাচ্ছে এবং কী করছে ? তার খবর নেয়া উচিত। শুধু স্কুল বা কলেজে পাঠিয়েই অভিভাবকদের দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। কারণ, মেয়েরা বোরখা পরে স্কুল-কলেজে যায়। তারা ক্লাস না করে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে পার্কে আসে। তাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের পার্কে আনাগোনা সম্পূর্ণ বন্ধ করতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে। প্রথম পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের ছবি তুলে ও পরিচয় লিপিবদ্ধ করে ক্লাস ফাঁকি দিয়ে আর পার্কে আসবেনা মৌখিক অঙ্গীকারের ভিত্তিতে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তবে, এরপর থেকে তাদেরকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দেয়া হবে। তাই অভিভাবকদের ওই বিষয়ে সচেতন হতে অনুরোধ জানান জেলা প্রশাসক। এছাড়া পার্ক মালিককে পার্কের ভেতরে থাকা ছোট ছোট টং ও পাশের দেয়াল ভেঙে দিতে বলা হয়েছে। সব সময় সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে পুরো পার্ক পর্যবেক্ষণ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.