চুয়াডাঙ্গায় মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকার মানহানি মামলা

দেশের বিভিন্ন স্থানে মামলার সংখ্যা ৭৮ : মাগুরা ও ফরিদপুরে সমন জারি
স্টাফ রিপোর্টার: ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে চুয়াডাঙ্গা ও ফরিদপুরে ৬০ কোটি টাকার মানহানি মামলা হয়েছে। অন্যদিকে মাগুরায় করা মানহানির অন্য একটি মামলায় মাহফুজ আনামকে ৮ মার্চ এবং ফরিদপুরের মামলাটিতে ১৫ মার্চ আদালতে হাজির হওয়ার আদেশ দিয়ে সমন জারির আদেশ দিয়েছেন আদলত।
গতকাল সোমবার চুয়াডাঙ্গায় দায়েরকৃত মামলা নিয়ে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডেইলি স্টারের সম্পাদকের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন স্থানে মোট মামলার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৮টি। এর মধ্যে ২১টিতে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ আনা হয়েছে। প্রায় সবকটি মামলার বাদী ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, এর সহযোগী ও সমমনা সংগঠনের নেতাকর্মী ও সরকারি কৌঁসুলি। চুয়াডাঙ্গায় ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকার মানহানি মামলা করা হয়েছে। জেলা আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম শফি বাদী গতকাল সোমবার চুয়াডাঙ্গা সদর থানা আমলি আদালতে এ মামলাটি দায়ের করেন। আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ড. এবিএম মাহমুদুল হক মামলা আমলে নিয়ে আগামী ৮ মার্চ আদেশের জন্য দিনধার্য করেছেন।
পেনাল কোডের ১২০(খ)/৫০০/৫০১ও ৫০৬ ধারায় দায়ের করা ওই মামলায় বাদী অভিযোগ করেছেন, ২০০৭ সালের ৩ জুন ডেইলি স্টার পত্রিকা ও অনলাইন সংস্করণে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও অপবাদমূলক মানহানিকর খবর প্রচার করতে থাকে। এতে তার অপূরণীয় ক্ষতি হয়। ক্ষতির পরিমাণ অনুমান ১০ কোটি টাকা। আসামি এটিএন নিউজে তার কৃত অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন। যার দ্বারা বর্তমানে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে চাঞ্চল্য ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তার এ কাজ রাষ্ট্রদ্রোহিতার সামিল।
৪ ফেব্রুয়ারি রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টকশোতে এক-এগারোর সময় সংবাদ প্রকাশের স্বাধীনতা ও গণমাধ্যমের বিচ্যুতির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে মাহফুজ আনাম তার পত্রিকায়ও এমন ত্রুটি-বিচ্যুতি হয়েছিলো বলে স্বীকার করেন। এর পরদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে এবং তার তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি-বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় নিজের ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে ডেইলি স্টারের সম্পাদকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ তুলে বিচার চান। একদিন পর ৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদে কয়েকজন সংসদ সদস্য ডেইলি স্টার বন্ধ করা এবং মাহফুজ আনামের পদত্যাগ ও বিচার দাবি করেন। এর পরদিন থেকেই মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে একের পর এক মামলা দেয়া হচ্ছে।
মাগুরা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গত বৃহস্পতিবার মাগুরায় মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে ৫০ হাজার কোটি টাকার মানহানির অভিযোগে মামলা হয়। বিচারক মামলাটি আমলে নেয়া ও আদেশের জন্য আগামী ৮ মার্চ তারিখ ধার্য রেখেছিলেন। মামলাটি করেছেন জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন। বাদীর আইনজীবী রাশেদ মাহমুদ বলেন, বাদী গতকাল সোমবার দুপুরে একই আদালতে হাজির হয়ে মামলা গ্রহণ ও আদেশের আবেদন করেন। বিচারক আবেদনটি গ্রহণ করেন এবং মাহফুজ আনামকে আগামী ৮ মার্চ আদালতে হাজির হওয়ার আদেশ দেন।
ফরিদপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, জেলা যুবলীগের যুগ্মআহ্বায়ক জাহিদ ব্যাপারী বাদী হয়ে গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফরিদপুরের ১ নম্বর আমলি আদালতে মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। মামলায় ৫০ কোটি ৫ লাখ টাকার মানহানির অভিযোগ আনা হয়েছে।
বাদীর আইনজীবী গোলাম রব্বানী বলেন, বিচারিক হাকিম হামিদুল ইসলাম মামলাটি আমলে নিয়ে মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন। মামলার পরবর্তী তারিখ ধার্য করা হয়েছে আগামী ১৫ মার্চ। ওই দিন মাহফুজ আনামকে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.