চুয়াডাঙ্গায় ভাইয়ের পিটুনিতে কিশোরী বোন নিহত? জবাব খুঁজচ্ছে পুলিশ

 

চুয়াডাঙ্গা খেজুরার খ্রিস্টান পল্লির স্কুলছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু : আজ ময়নাতদন্ত

 

 

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা ডিঙ্গেদহ খেজুরা খ্রিষ্টান মিশোনারীর ১২ বছর বয়সী কিশোরী নূপুর লাশ হয়েছে। তাকে তার ভাই পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে জোর গুঞ্জ উঠলেও পরিবারের সদস্যরা অবশ্য বলেছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় নূপুর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। পুলিশ প্রকৃত মৃত্যু রহস্য উন্মোচনে গতরাতে মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। আজ শনিবার চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত করা হতে পারে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের পদ্মবিলা ইউনিয়নের খেজুরা খ্রিস্টান পল্লির বিমল সরকারের দু মেয়ে এক ছেলের মধ্যে নূপুর ছিলো দ্বিতীয়। গতকাল সন্ধ্যায় নূপুরকে মুমূর্ষ অবস্থায় ডিঙ্গেদহের বারি ডাক্তারের নিকট নেয়া হলে তিনি মৃত বলে ঘোষণা দেন। স্থানীয় মৃতদেহে আঘাতের দাগ দেখে সন্দেহ করতে থাকেন। এরপরও মৌখিকভাবে অনেকেই অভিযোগ তুলে  বলেন, ১২ বছর বয়সী কিশোর নূপুরকে তার বড় ভাই সাইমুন পিটিয়ে শাসন করতে গিয়ে মেরে ফেলেছে। ঘটনা ধামা চাপা দিতে কখনো বলা হচ্ছে হৃদরোগে মারা গেছে, কখনো বলা হচ্ছে বিকেলে ডিঙ্গেদহে একটি বাড়িতে খানা খেয়ে বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়ে। বমি করে। চিকিৎসকের নিকট নেয়া হলে চিকিৎসক বলেন মারা গেছে। এদিকে নিহতের ভাই সায়মুনের অনুপস্থিতি সন্দেহের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ইন্সপেক্টর তোজাম্মেল হক সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে রাত ৯টার দিকে খেজুরা মিশনে পৌছান। তিনি স্থানীয়দের নিকট থেকে ঘটনার বর্ণনা শোনেন। লাশ উদ্ধার করে সদর থানায় নেন। তিনি বলেন, মৃত্যু রহস্যজনক। ফলে রহস্য উন্মোচনে ময়নাতদন্ত প্রয়োজন। মৃতদেহ সদর থানায় নেয়া হলে নূপুরের বাবাও থানায় হাজির হন। তিনি বলেন, শুক্রবার ডিঙ্গেদহে এক আত্মীয় বাড়ি খানাপিনা ছিলো। পরিবারের সকলেই ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিই। বিকেলে নূপুরসহ অন্যরা বাড়ি ফেরে। সন্ধ্যায় অসুস্থ হয়ে পড়ে।

নূপুর ডিঙ্গেদহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী। তাকে কেনো তার ভাই ঘরে আটকে মারধর করে তা অবশ্য নিশ্চিত করে জানা সম্ভব হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *