চুয়াডাঙ্গায় নতুন আইনে প্যাকেজ ভ্যাট পুনর্বহালসহ ৭ দফা দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণে ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন

 

জাতীয় স্বার্থে অবিলম্বে দাবি না মানলে বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণার হুঁশিয়ারি

স্টাফ রিপোর্টার: নতুন আইনে প্যাকেজ ভ্যাট পুনর্বহালসহ জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এবং এফবিসিআই’র যৌথ কমিটির ৭ দফা দাবিতে সারাদেশের মতো চুয়াডাঙ্গাতে মানববন্ধন করেছেন ব্যবসায়ীরা। গতকাল সোমবার বেলা ১২টায় শহরের শহীদ হাসান চত্বরে জেলা চেম্বার অব কমার্স ও দোকানমালিক সমিতির আয়োজনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে সমবায় নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদ, জেলা ইটভাটা মালিক সমিতি, পরিবেশক সমিতি, হোটেল রেঁস্তোরা মিষ্টান্ন বেকারি ও সেমাই মিল মালিক সমিতিসহ স্থানীয় সকল মার্কেটের ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে সকল সরবরাহের ক্ষেত্রে বার্ষিক টার্নওভার ৩৬ লাখ টাকা থেকে ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত কেবল উৎপাদন পর্যায়ে ৩ শতাংশ টার্নওভার কর আরোপ, টার্নওভার কর প্রদানকারীর নিকট থেকে ক্রয়কৃত উপকরণের বিপরীতে মূসক নিবন্ধিত ব্যক্তি ওই কর রেয়াত গ্রহণ করতে পারবেন মর্মে আইন প্রণয়ন, ব্যবসায়ী পর্যায়ে বার্ষিক ৩৬ লাখ টাকার ঊর্ধ্বে, টার্নওভারের পরিমাণ নির্বিশেষে ২ শতাংশ হারে মূসক আরোপ, উপকরণ কর রেয়াত গ্রহণে অসমর্থ প্রতিষ্ঠানের করযোগ্য সরবরাহের ক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক হ্রাসকৃত হারে মূসক আরোপের বিধান অন্তর্ভূক্ত, হ্রাসকৃত হারে মূসক প্রদানকারী এবং টার্নওভার কর প্রদানকারী উপকরণ কর রেয়াত গ্রহণ করতে পারবেন না মর্মে আইন প্রণয়নসহ কয়েকটি ধারা সংশোধণের দাবি জানানো হয়।

বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা চেম্বার অব কর্মাসের সভাপতি হাজি ইয়াকুব হোসেন মালিক বলেন, আমরা ব্যবসায়ীরা নিয়মিত কর প্রদান করে থাকি। কিন্তু ছোট ব্যবসায়ীদের থেকে রাজস্ব আদায় করবেন এবং বড় ব্যবাসায়ীরা ফাঁকি দেবেন। আর ঘুষ দিয়ে রাজস্ব কর্মকর্তার পকেট ভরাবেন এটা হতে দেয়া যাবে না। মন্ত্রণালয়ের মধ্যে কুচক্রী মহল ঢুকে পড়েছে। সেই মহলটি বড় বড় ব্যবসায়ীদের কাছে রাজস্ব আদায় না করে ঘুষ নিয়ে থাকেন। জাতীয় স্বার্থে অবিলম্বে দাবিগুলো মেনে নেন। দাবি না মানা হলে বৃহত্তর কর্মসূচি দেয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

আরও বক্তব্য রাখেন জেলা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হাজি আসাদুল হোসেন জোয়ার্দ্দার লেমন, সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল কাদের যগলু, সাধারণ সম্পাদক ইবরুল হাসান জোয়ার্দ্দার, সমবায় নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মাহফুজুর রহমান জোয়ার্দ্দার মিজাইল, ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি হাজি বজলুর রহমান, পরিবেশক সমিতির সভাপতি হাজি সালাউদ্দিন চান্নু, রেলবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ডা. নাজমুল আলম খানসহ স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *