চুয়াডাঙ্গায় জোড়াখুন মামলার প্রধান আসামি মালেক মোল্লা জেলহাজতে

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের গঙ্গাদাসপুরের চাঞ্চল্যকর জোড়াখুন মামলার প্রধান আসামি আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মালেক মোল্লাকে (৬০) জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার  জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন প্রার্থণা করলে বিচারক শিরিন কবিতা আখতার তা নাকচ করে মালেক মোল্লাকে জেলা কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলাসূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের ৪ জানুয়ারি জীবননগরের গঙ্গাদাসপুরে জমিজমা সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন মোহাম্মদ আলী (৫০) ও তার চাচাতো ভাই শাহাবুদ্দীনকে (৫৫) নৃশংসভাবে বোমা মেরে ও কুপিয়ে হত্যা করে। ওই ঘটনায় নিহত মোহাম্মদ আলীর সহোদর ছোটভাই আব্দুস সালাম বাদী হয়ে আব্দুল মালেক মোল্লাসহ ৪২ জনকে আসামি করে ৬ জানুয়ারি জীবননগর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।

এদিকে মামলার প্রধান আসামি সীমান্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে অংশ নেন এবং নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে পরাজিত হন। ওই নির্বাচন উপলক্ষে ৪ মে উচ্চ আদালতে জামিনের প্রার্থনা করলে ছয় সপ্তাহের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করা হয় এবং দায়রা জজ আদালতে  আত্মসমর্পনের জন্য বলা হয়। ছয় সপ্তাহ পার হওয়ার পর গতকাল বুধবার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পন করলে তাকে বিচারক শুনানি শেষে জামিন না মঞ্জুর করে আসামি মালেক মোল্লাকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেয়া হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *