চুয়াডাঙ্গার হোগলডাঙ্গায় পুলিশ পরিচয়ে যুবক অপহরণের সময় গ্রামবাসীর প্রতিরোধ অপহৃতকে ছেড়ে দিয়ে বোমা ফাটিয়ে অপহরণকারীদের পলায়ন

পদ্মবিলা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার হোগলডাঙ্গা গ্রাম থেকে পুলিশ পরিচয়ে যুবক অপহরণ করলেও গ্রামবাসীর প্রতিরোধের মুখে যুবককে ছেড়ে দিয়ে পালিয়েছে অপহরকচক্র। তবে তারা প্রতিরোধের মুখে ৩টি শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে সটকে পড়তে সক্ষম হয়। ঘটনাটি ঘটেছে গতপরশু মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ১১টার দিকে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের পদ্মবিলা ইউনিয়নের হোগলডাঙ্গা গ্রামের শরীফ বিশ্বাসের বাড়িতে পরশু রাতে ৯/১০ জনের একদল অস্ত্রধারী প্রবেশ করে। তারা নিজেদেরকে পুলিশের লোক বলে পরিচয় দিয়ে গৃহকর্তার ছেলে ইব্রাহিমকে ডেকে দিতে বলে। ইব্রাহিম (৩২) ঘর থেকে বের হতেই অস্ত্রধারীরা তাকে টেনেহেঁচড়ে ধরে নিয়ে যায় মাঠের দিকে। সন্দেহ দানা বাধে। বাড়ি থেকে আনুমানিক ২শ গজ দূরে নেয়ার পর ইব্রাহিম চিৎকার দেয়। ইব্রাহিমের চিৎকার ও তার পরিবারের সদস্যদের ডাকে গ্রামবাসী প্রতিরোধ গড়ে তোলে। গ্রামবাসী প্রতিরোধ গড়ে তুললে অপহরকচক্র পরপর তিনটি বোমা নিক্ষেপ করে। বিকট শব্দে বোমা তিনটি বিস্ফোরিত হলেও কেউ হতাহত হয়নি। বোমা বিস্ফোরণের সময় গ্রামবাসী থমকে যায়। অপহরকচক্র অপহৃত ইব্রাহিমকে ছেড়ে দিয়ে সটকে পড়ে।

এলাকাবাসী বলেছে, এলাকায় পুলিশি টহল না থাকায় একের পর এক বোমা ফাটানোর ঘটনা ঘটছে। অপহরকচক্র ও ডাকাতদল একের পর এক অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করছে। সরোজগঞ্জ ফাঁড়ি পুলিশের আওতায় থাকলেও কোনোদিন টহলে আসে না। এ দিকে বিশেষ নজর দেয়ার জন্য এলাকাবাসী পুলিশ সুপারের আশু দৃষ্টি কামনা করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *